চুরির অপবাদে স্কুলছাত্রের হাত-পা ভেঙ্গে দিলো দোকানদার

মোঃ রবিউল ইসলাম: লক্ষ্মীপুরের রামগতিতে ১৫০ টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে ৮ম শ্রেণীর ছাত্র নিজাম উদ্দিনকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে এক খেলনা দোকানদার।  শুক্রবার রাত ১০টার দিকে তাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর আগে বিকালে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে সদর হাসপাতালে রেফার করে চিকিৎসকরা।
আহত স্কুলছাত্র নিজাম উদ্দিন চরসেকান্তর সফিক একাডেমীর ৮ম শ্রেণীর ছাত্র ও রামগতি পৌরসভার চর হাসান-হোসেন এলাকার আশরাফ আলীর ছেলে। স্কুলছাত্র নিজাম উদ্দিনের হাত-পাঁ ভেঙ্গে গেছে, তার অবস্থায় গুরুতর, তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র পাঠানো হবে বলে জানিয়েছেন ডা. সুজনা বেগম।
আহত স্কুলছাত্রের বাবা আশরাফ আলী ও মা জানান, রামগতি পৌরসভার হাসান-হোসেন এলাকার খায়ের মাঝির খেলনা দোকান থেকে বুধবার বিকালে কেবা কারা ১৫০ টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। ওই টাকা চুরির অপবাদ দিয়ে স্থানীয় নুড়িয়া হাজিরহাট বাজার থেকে ওইদিন রাত ৯টার দিকে খায়ের মাঝি, তার ছেলে মনির হোসেন ও আবদুল করিম নিজাম উদ্দিনকে তার বাড়িতে ধরে নিয়ে যায়। পরে ঘরের ভেতর আটকিয়ে হাত-পা বেঁধে ও মুখে কসটিভ লাগিয়ে মারধর করে। একপর্যায়ে একটি হাত ও পা ভেঙ্গে দেয় তারা।
পরে গুরুতর আহত অবস্থায় নিজাম উদ্দিনকে তাদের ভয়ে হাসপাতালে না নিয়ে বাড়িতে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা চালায় পরিবারের লোকজন। তার অবস্থায় অবনতি হওয়ায় শুক্রবার বিকালে রামগতি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। নিজাম উদ্দিনের অবস্থার আরো অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাত ১০টার দিকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। নিজাম উদ্দিন চুরি কি জিনিস জানে না, মিথ্যা অপবাদ দিয়ে পরিকল্পিতভাবে খায়ের মাঝি ও তার দু’ছেলে বেদম পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্বজনরা।
রামগতি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এটিএম আরিচুল হক জানান, এ বিষয়ে এখনো কোন অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।