কাগজ ডেস্ক : অস্ত্রোপচারের মাঝপথে রোগীকে টেবিলে রেখে সেখানেই ঘুমিয়ে গিয়েছিলেন চিকিৎসক। সেই ছবি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। স্বাভাবিক অবস্থায় এরপর সমালোচনার ঝড় বয়ে যাওয়ার কথা। এ ক্ষেত্রে সেটা তো ঘটেইনি, বরং দেশের মানুষের কাছে নায়ক বনে গেছেন সেই চিকিৎসক। এ ঘটনা চীনের।

অর্থোপেডিক সার্জন লুও শানপেং কাজ করেন চীনের গোয়েইজো প্রদেশের গিইয়াংয়ের ৬ নম্বর পিপলস হাসপাতালে। ৪ জানুয়ারি এক অভিবাসী শ্রমিকের প্রায় ছিঁড়ে যাওয়া হাত জোড়া লাগানোর সময় ঘুমিয়ে পড়েন তিনি। সেই ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম উইচ্যাটে ছেড়ে দেন ওই চিকিৎসকের সহযোগী এক নার্স। সেটাই হয়ে যায় ভাইরাল।

পরে জানা গেছে, ওই অস্ত্রোপচারের আগে টানা আরও পাঁচটি অস্ত্রোপচার করেন চিকিৎসক লুও। এরপরও ওই অভিবাসী শ্রমিকের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাঁকে অনুরোধ করা হয়েছিল অস্ত্রোপচারটি করতে। এই অনুরোধ ফেলতে পারেননি তিনি। লেগে যান কাজে। কিন্তু টানা ২০ ঘণ্টার কাজের ধকল তো সামলে ওঠা কঠিন। নিজের আরামের কথা ভুলে রাজি হওয়ায় তাঁর প্রশংসা করছেন সবাই।

চিকিৎসক লুও বলেছেন, ‘অস্ত্রোপচারের একটা পর্যায় শেষ হওয়ার পর আবার অ্যানেসথেসিয়া দেওয়া হয়। সেটা কার্যকর হতে এবং রোগীর হাতের রক্ত সঞ্চালন অব্যাহত রাখার জন্য হাতটি কিছু সময় উঁচু করে রাখা দরকার ছিল। ফলে ওই সময় কার্যত আমার কিছু করার ছিল না। সেই ফাঁকে টেবিলে মাথা রেখে চোখ বন্ধ করে ছিলাম। কিন্তু অতিরিক্ত ক্লান্তির কারণে হয়তো ঘুমিয়ে পড়েছিলাম। যদিও এটা প্রত্যাশা করিনি।’