জয়নাল আবেদীন: রংপুর কারমাইকেল কলেজের বাংলা বিভাগের সাবেক বিভাগীয় প্রধান, অসংখ্য বই‘র লেখক, সাহিত্যিক অধ্যাপক মুহম্মদ আলীম উদ্দিন আর নেই।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা ৩৫ মিনিটে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালের আইসিইউ-তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও রংপুর সাহিত্য- সংস্কৃতি পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অধ্যাপক মুহম্মদ আব্দুল আলীম উদ্দিন দীর্ঘদিন থেকে বার্ধক্যজনিত রোগে ভুগছিলেন। গত ৮ আগস্ট তাঁকে রংপুর ডেডিকেটেড করোনা আইসোলেশন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর জ্বর, কাশি ও শ্বাসকষ্ট থাকলেও চিকিৎসা গ্রহনের পর তিনি করোনা নেগেটিভ ছিলেন।সেখানে টানা এগারো দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় বুধবার সন্ধ্যায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। তিনি এক ছেলে ও তিন মেয়ে সন্তান, নাতি-নাতনি, আত্মীয় স্বজন, বন্ধু বান্ধব ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। প্রয়াত এই গুণীজনের জানাজার নামাজ বৃহস্পতিবার বাদ যোহর রংপুর নগরীর জেএনসি নুরপুর জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। হোমিওপ্যাথিক কলেজ সংলগ্ন নুরপুর ছোট কবরস্থানে স্ত্রীর কবরের পাশে তাঁর দাফনকার্য সুসম্পন্ন করা হয় । মুহম্মদ আলীম উদ্দীন রংপুর কারমাইকেল কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে শিক্ষাক্ষেত্রে সাফল্যের জন্য অর্জন করেছেন ২০০০ সালের শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের সম্মান। তিনি শিক্ষাবিদ হিসেবে চারণ সাংবাদিক মোনাজাত উদ্দিন স্মৃতি পদক পান। এছাড়াও তাঁর অর্জনের তালিকায় রয়েছে নাগরিক নাট্যগোষ্ঠী-২০০১, ছান্দসিক ২০০২ ও জলুবার ২০০২ সাহিত্য পদক, নিখিল ভারত বঙ্গসাহিত্য সম্মেলন পদক ২০০৪, সাধক কবি হেয়াত মামুদ পদক ২০০৬, শ্রেষ্ঠ বেতার ব্যক্তিত্ব পদক ২০০৮, সরকারি কর্মচারী পরিষদ পত্রিকা কর্তৃক শ্রেষ্ঠ্য রম্য রচনা পদক ২০০৬, রংপুর পৌরসভা কর্তৃক শিক্ষাবিদ পদক ২০০৯ এবং শিক্ষাবিদ পদক ২০১১, একুশে বইমেলা সম্মাননা স্মারক ২০১০, খেরাজ আলী স্মৃতি পদক ২০১৭, সম্মিলিত লেখক সমাজ কর্তৃক গুণিজন সম্মান ২০১৭, ক্রাউন সিমেন্ট গুনিজন সংবর্ধনা ২০১৬, নিউইয়র্ক প্রবাসী শিক্ষার্থী কর্তৃক গুণীজন সম্মাননা ২০১৭ সহ আরও অনেক সম্মাননা। মুহম্মদ আব্দুল আলিম উদ্দীন এর জীবনী বাংলা একাডেমি লেখক অভিধানের আন্তর্ভুক্ত হয়েছে। তিনি বাংলা একাডেমির জীবন সদস্য ছিলেন। অবসর জীবনে তিনি লেখালেখিতে নিবেদিত ছিলেন। তাঁর লেখা গদ্য, কাব্য, প্রবন্ধ ও ছড়ার অনেক গ্রন্থ রয়েছে। তিনি গবেষণাধর্মী লেখক ছিলেন।মুহম্মদ আলীম উদ্দীনের জন্ম রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার বারোবিঘা গ্রামে। তাঁর বাবা মরহুম মজেতুল্লাহ, মা মরহুমা আজিমুন্নেছা। রংপুর মহানগরের নুরপুর এলাকার নিভৃত নিলয় নিবাসে তিনি বসবাস করতেন।এদিকে, এই বরেণ্য ব্যক্তিত্বের মৃত্যুতে রংপুরের সাহিত্য, সংস্কৃতি ও শিক্ষাঙ্গনে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে শোক প্রকাশ করেছে,রংপুরের সাবেক জেলা প্রশাসক অবসরপ্রাপ্ত অতিরিক্ত সচিব খন্দকার আতিয়ার রহমান, বিভাগীয় প্রশাসন,রংপুর সিটি করপোরেশন মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা,ব্যবসায়িদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই‘র সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু, জেলা প্রশাসক আসিব আহসান, পুলিশ প্রশাসন ও সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি(বাকবিশিস)সভাপতি আব্দুল ওহাব,জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, সাধারন সম্পাদক এডভোকেট রেজাউল করিম রাজু,মহানগর সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল, রংপুর প্রেসক্লাব সভাপতি মাহবুব রহমান হাবু সাধারন সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সরকার রফিক । রংপুর চেম্বার অব কমার্স সভাপতি মোস্তফা সোহরাব চৌধুরী টিটু, রংপুর পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান সংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব কাজী মোহাম্মদ জুননুন ,জাতীয় পার্টির সম্পাদক মো: ইয়াসির বিএনপি, জাসদ, বাসদসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠন শোক প্রকাশ করেছেন।

Previous articleতাহিরপুরে পরিচ্ছন্ন এবং হাত ধোঁয়া উন্নতকরণ বিষয়ক প্রশিক্ষণ
Next articleকোম্পানীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি গ্রেফতার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।