বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার শাস্তি ও দল থেকে বহিস্কারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনায় পোস্টারিং করা হয়েছে।

গতকাল রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার চাপরাশিরহাট, নতুন বাজার, বামনী বাজার,পেশকারহাটসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের কাদের মির্জার নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলার শিকার হয়ে নিহত এবং আহতদের পরিবারের ব্যানারে এসব পোস্টার সেঁটে কাদের মির্জার শাস্তি ও দল থেকে বহিস্কারের দাবি করে প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনা করা হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়,কে বা কাহারা রাতের অন্ধকারে এসব পোস্টারিং করে গেছে তা সুনির্দিষ্ট ভাবে জানা যায়নি। তবে কারা এ ধরনের পোস্টারিং করেছে,এমন প্রত্যক্ষদর্শী ও পাওয়া যায়নি। তবে প্রেস বিজ্ঞপ্তি কাদের মির্জার অনুসারী উপজেলা আওয়ামীলী সভাপতি-সম্পাদক কাদের মির্জার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে এ ঘটনার জন্য দায়ী করেছে।

পোস্টারে লিখা রয়েছে, গত ৭ মাসে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আ.কা মির্জার রাক্ষুসে থাবায় নিহত এবং আহতদের ছবি। আ.কা মির্জার শাস্তি ও দল থেকে বহিস্কারে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টি কামনায়। প্রচারে-আ.কা মির্জার নেতৃত্বে তার সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলার শিকার হয়ে নিহত এবং আহতদের পরিবার।

অপরদিকে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে কাদের মির্জা ঘোষিত কমিটির কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক মো.ইউনুছ স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ ধরনের পোস্টারিংয়ের তীব্র নিন্দ্রা ও প্রতিবাদ জানানো হয় এবং দ্রুত সন্ত্রাসীদের আইনের আওতায় আনার জোর দাবি জানান। প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, সর্বজন শ্রদ্ধেয় বসুরহাট পৌরসভার সুনামধন্য মেয়র আব্দুল কাদের মির্জা সাহেবকে ব্যঙ্গ করে কতিপয় সন্ত্রাসী অপরাজনীতির হোতারা বিভিন্ন জায়গায় পোস্টার লাগিয়ে মেয়রের সম্মান হানি ঘটায়।

এ বিষয়ে জানতে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আব্দুল কাদের মির্জার মুঠোফোনে সোমবার বিকেল ৪টা ৪৮মিনিটে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

তবে এ বিষয়ে কাদের মির্জার ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত কাদের মির্জা ঘোষিত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইস্কান্দার হায়দার চৌধুরী বাবুল বলেন, বিভিন্ন জায়গায় কাদের মির্জার বিরুদ্ধে পোস্টারিং করা হয়েছে এটি সত্য। কাদের মির্জার প্রতিপক্ষ বাদল এ কাজ করেছে বলে তিনি দাবি করেন।
এ বিষয়ে জানতে সন্ধ্যা ৬টা ১৪মিনিটে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.সাইফুদ্দিন আনোয়ার জানান, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেননা। তবে এ বিষয়ে তিনি খোঁজ খবর নিয়ে দেখবেন।

Previous articleবন্ধুর সাথে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূ, গ্রেফতার ১
Next articleচট্টগ্রাম মেডিকেলের নালায় মিললো ২ নবজাতকের লাশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।