বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ১১, ২০২৪
Homeআন্তর্জাতিকফের কৃষ্ণাঙ্গকে পুলিশের গুলি, বিক্ষোভে রণক্ষেত্র যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন

ফের কৃষ্ণাঙ্গকে পুলিশের গুলি, বিক্ষোভে রণক্ষেত্র যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন

বাংলাদেশ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে ফের পুলিশের গুলিতে এক কৃষ্ণাঙ্গ গুরুতর আহতের ঘটনায় রণক্ষেত্র উইসকনসিন অঙ্গরাজ্য। পুলিশের বর্ণবাদী আচরণের প্রতিবাদে সোমবার বিক্ষোভে ফেটে পড়ে সাধারণ মানুষ। এসময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে শুরু হয় সংঘর্ষ। পরে রাতভর তাণ্ডব চালায় বিক্ষোভকারীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ন্যাশনাল গার্ড মোতায়েনের পাশাপাশি জারি করা হয়েছে কারফিউ।

মিনিয়াপোলিসের পর এবার উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যের কেনোশা শহর। ফের পুলিশি বর্বরতার শিকার কৃষ্ণাঙ্গ যুবক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, গাড়িতে ওঠার জন্য ব্লেক যখন হেঁটে যাচ্ছিলেন, তখন তাকে অনুসরণ করে দুই পুলিশ সদস্য। ব্লেক গাড়ির দরজা খোলার সঙ্গে সঙ্গে পেছন থেকে পর পর ৭টি গুলি চালায় পুলিশ।

এ ঘটনার প্রতিবাদে কয়েক ঘণ্টার মধ্যে রাস্তায় নেমে আসে হাজার হাজার মানুষ। সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে তারা। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস নিক্ষেপ করে পুলিশ। এসময় আন্দোলকারীরা পাল্টা ইট-পাটকেল ও ককটেল নিক্ষেপ করলে উত্তাল হয়ে ওঠে উইসকনসিন। ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার পাশাপাশি চলে দফায় দফায় সংঘর্ষ। শহরের বিভিন্ন জায়গায় ব্যাপক ভাঙচুর ও যানবাহনে আগুন ধরিয়ে দেয় বিক্ষোভকারীরা। রণক্ষেত্রে পরিণত হয় কেনোশা শহর।

গুলিবর্ষণের ঘটনায় জড়িতদের বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছে উইসকনসিনের বিচার বিভাগ। বিক্ষোভকারীদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে শহরজুড়ে কারফিউ জারি করেছে স্থানীয় প্রশাসন।

কেনোশা সিটি মেয়র জন অ্যান্টারামিয়ান বলেন, ‘আমরা আপনাদের ঘরে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি। প্রত্যেকটি ঘটনার বিচার নিশ্চিত করা হবে। গুলির ঘটনা তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে স্বচ্ছ তদন্ত করা হবে।’

তবে মেয়রের কথায় সন্তুষ্ট নন আন্দোলকারীরা। তার বক্তব্যে আস্থা রাখতে পারছেন না জানিয়ে আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা।

তিনি বলেছেন তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে তদন্ত করবেন। আমরা বলতে চাই, এটাই মূল সমস্যা। আমরা পুরো ব্যবস্থার পরিবর্তন চাই। পুরো ব্যবস্থাটাই দুর্নীতিগ্রস্থ। বার বার কৃষাঙ্গদের ওপর হামলা হলেও কোনো ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

এর আগে, গত ২৫শে মে মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনিয়াপোলিস শহরে পুলিশের নির্যাতনে নিহত হন জর্জ ফ্লয়েড নামের এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তি। এরপরপরই যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে পুলিশি বর্বরতা ও বর্ণবাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments