বাংলাদেশ ডেস্ক: ইরানের বিভিন্ন প্রদেশে বন্যায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫৬-তে দাঁড়িয়েছে। এছাড়া, এখন পর্যন্ত ১৮ জন নিখোঁজ রয়েছেন। হঠাৎ প্রবল বর্ষণ থেকে এই ভয়াবহ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে।

ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রধান মেহেদি ওয়ালিপুর বলেছেন, ‘দুর্ভাগ্যজনকভাবে মাজানদারান প্রদেশের বন্যার কারণে নতুন করে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে এবং এর ফলে সারা দেশে বন্যায় মৃতের সংখ্যা ৫৬-তে পৌঁছেছে। এ সময়ে আরো ১৮ জন নিখোঁজ রয়েছে।

ওয়ালিপুর জানান, গত ২৩ জুলাই থেকে শুরু হওয়া বন্যায় এ পর্যন্ত ইরানের ২১টি প্রদেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যার মধ্যে সবচেয়ে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছে লোরেস্তান, চাহারমহাল, বাখতিয়ারি, ইস্পাহান এবং তেহরান প্রদেশ। গতরাতে এইসব প্রদেশে বন্যায় অনেক বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

ইরানি রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির প্রধান আরো জানান, এ পর্যন্ত তিন হাজার ৭০০ মানুষকে নিয়ে জরুরিভিত্তিতে নিরাপদ আশ্রয় সরিয়ে নেয়া হয়েছে। এছাড়া ২৫০০ মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে নেয়া হয়েছে।

গত বৃহস্পতিবার প্রাথমিক সরকারি হিসেবে রাজধানী তেহরানের পাশে ইমামজাদে দাউদ এলাকায় মৃতের সংখ্যা সাত বলে জানানো হয়েছিল। এছাড়া সেখানে ১৪ জন নিখোঁজ ছিলেন বলে উল্লেখ করা হয়। সেখানে বন্যার পরিস্থিতি এখনো ভয়াবহ এবং ইরানের রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি মোবাইল মেসেজের মাধ্যমে ওই এলাকার জনগণকে সোমবার পর্যন্ত নদী এবং পার্বত্য এলাকা এড়িয়ে চলার বিষয়ে সতর্কবার্তা দিয়েছে।

এদিকে, বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য তেহরানের গভর্নরকে নির্দেশ দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি। পাশাপাশি জরুরি সঙ্কট মোকাবেলায় গঠিত হেডকোয়ার্টারকে বন্যাকবলিত এলাকার লোকজন সরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

সূত্র : পার্সটুডে

Previous articleউলিপুরে হাতেনাতে আটক ২ মাদক ব্যাবসায়ী
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে র‍্যাবের অভিযানে ১০৫ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার ২
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।