বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ চাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

অপহৃত আবিদা সুলতানা সুরভী (১৩) স্থানীয় কালিকাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী এবং সোনাপুর ইউনিয়নের কালিকাপুর গ্রামের সৌদি প্রবাসী আকবর হোসেনের মেয়ে।

শনিবার (২৬ জুন) রাতে এই ঘটনায় ভুক্তভোগীর মা শামসুন নাহার ২জনকে অভিযুক্ত করে সোনাইমুড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এর আগে, একই দিন সকাল ১০টার দিকে উপজেলার কালিকাপুর গ্রাম জোরপূর্বক মাইক্রোতে করে অপহরণ করা হয় বলে অভিযোগ করেন অপহৃত ওই স্কুল ছাত্রীর মা।

লিখিত অভিযোগ ও ভিকটিমের মা সূত্রে জানা যায়, গত ২৬ জুন সকাল ১০টার দিকে সুরভী কালিকাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে এ্যাসাইনমেন্ট জমা দিয়ে বাড়ী ফেরার পথে স্কুলের সামনে থেকে স্থানীয় মো. খোকনের ছেলে সজিব (২০) ও তার সাঙ্গপাঙ্গরা তার মুখে ওড়না পেঁচিয়ে জোরপূর্বক মাইক্রো তুলে অপহরণ করে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যায়। পরে কালিকাপুর গ্রামের আবদুল মতিনের পুত্র মোশারফ হোসেন (৩৫) ওই ছাত্রীর মায়ের কাছে ৩০ হাজার টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

সোনাইমুড়ী থানার উপপরিদর্শক (এসআই) ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মাইন উদ্দিন স্কুলছাত্রী অপহরণের বিষয়টি নিশ্চিত করেন। তবে তিনি জানান, এখন পর্যন্ত অপহৃত স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

তবে স্থানীয় গণমাধ্যম কর্মীরা জানান, ভিকটিমের মায়ের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ছাত্রীকে ঢাকার উত্তরখান থেকে রোববার দুপুরে সোনাইমুড়ী থানার পুলিশ উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে জানতে সোনাইমুড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিনের ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

Previous articleমাদারীপুরে শ্রমিক লীগ নেতা খুনের ঘটনায় দোষীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ-মানববন্ধন
Next articleহেমায়েতপুর-সিংগাইর-মানিকগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২, আহত ৪
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।