বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে স্কুল ছাত্রী রুবিনা আক্তারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের ১২ দিন পরে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ করেছেন তার পিতা। গতকাল ছাত্রীর পিতা সেলিম চৌকিদার বাদী হয়ে মুলাদী থানায় মামলা করেন। তবে রুবিনার ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন আসার পরে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা।

জানাগেছে, গত ১২ মে রাতে উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের চরমালিয়া (নদীর উত্তরপাড়) গ্রামের সেলিম চৌকিদারের বাড়ি থেকে তার মেয়ে রুবিনা আক্তারের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। ওই ঘটনায় পরদিন ১৩ মে মুলাদী থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শের ই বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, রুবিনা আক্তার দুই বছর আগে সফিপুর ইউনিয়ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৮ম শ্রেণিতে পড়ালেখা করতো। ওই সময় একই গ্রামের এলেম সরদারের ছেলে সাইফুল সরদার তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে উত্যাক্ত শুরু করে। পরে রুবিনা স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দিলে মোবাইল ফোনে তাদের কথাবার্তা হতো এবং এক সময়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। রুবিনার সাথে সাইফুলের সম্পর্কের বিষয়টি জানাজানি হয়ে গেলে এলেম সরদার ও তার লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। কিছুদিন আগে সাইফুল বিয়ে করতে অস্বীকৃতি জানালে আমার মেয়ে আইনের আশ্রয় গ্রহণের কথা জানায়। এতে সাইফুল ও তার পরিবারের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়। আমাদের ধারণা গত ১২ মে সাইফুল, তার ভাই টিটু সরদার, পিতা এলেম সরদার লোকজন নিয়ে আমাদের বাড়িতে আসে এবং ঘুমন্ত রুবিনাকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে। পরে তার মরদেহের গলায় ওরনা পেচিয়ে ঝুলিয়ে রাখে। এই ঘটনায় সেলিম চৌকিদার বাদী হয়ে ৭জনকে আসামী করে মুলাদী থানায় মামলা করেন।

এব্যাপারে মুলাদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এস এম মাকসুদুর রহমান বলেন, স্কুল ছাত্রীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছিলো। একই ঘটনায় তার বাবা বাদী হয়ে ৭জনের নামে হত্যার অভিযোগ করেছেন। তাই ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনের ভিত্তিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Previous articleধর্মপাশা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় পরিদর্শনে জেলা প্রশাসক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন
Next articleমুলাদীতে যুবকের চোখ উৎপাটন করে গলা কেটে হত্যা, আটক ২
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।