বাংলাদেশ ডেস্ক: আন্তর্জাতিক বাজারে আবারও বাড়ছে জ্বালানি তেলের দাম। গত নয় মাসে এর দাম বেড়ে সর্বোচ্চ হয়েছে। গত বৃহস্পতিবারও অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দাম ছিল ৫১ দশমিক ৯০ ডলার। যা রোববার (২০ ডিসেম্বর) দাঁড়ায় ৫২ দশমিক ২৬ ডলারে।

অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রে ক্রমেই কমে আসছে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের মজুত। অপরদিকে করোনার প্রকোপ কমে আসায় আসিয়ান দেশগুলোতে চালু হচ্ছে শিল্পকারখানা। বাড়ছে জ্বালানি তেলের চাহিদা। তাই দৈনিক গড়ে ৯৩ হাজার ব্যারেল তেল রফতানি বাড়িয়েছে সৌদি আরব।

এদিকে এশিয়ার দেশগুলোর জন্য অপরিশোধিত জ্বালানি তেল ৮০ সেন্ট বৃদ্ধির ঘোষণা করেছে সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত জ্বালানি প্রতিষ্ঠান সৌদি আরামকো। আরামকোর এ ঘোষণার ফলে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে এশিয়ার দেশগুলো সৌদি আরবের কাছ থেকে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল কিনতে গেলে আরব লাইট ক্রুডের দাম ওমান/দুবাই গ্রেডের তুলনায় ব্যারেলপ্রতি ৩০ সেন্ট বাড়তি থাকবে। সূত্র: আরব নিউজ।

গত কয়েকবছর যাবত বিশ্বের তেল রপ্তানীকারক দেশগুলোর সংগঠন ‘অপেক’ আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত জ্বালানি তেলের দরপতনের লাগাম টানতে বৈশ্বিক উত্তোলন সীমিত রাখার সিদ্ধান্ত হয় দুই দপায়। গত অক্টোবরে বিশ্বের শীর্ষ অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানিকারক দেশ সৌদি আরব থেকে অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি আগের মাসের তুলনায় দৈনিক গড়ে ৯৩ হাজার ব্যারেল বেড়েছে। সৌদি আরবের রাষ্ট্রায়ত্ত জয়েন্ট অর্গানাইজেশনস ডাটা ইনিশিয়েটিভের (জেওডিআই) সাম্প্রতিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জেওডিআইয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি বছরের অক্টোবরে দেশটি থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিদিন গড়ে ৬১ লাখ ৫৯ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি হয়েছে। সেপ্টেম্বরে সৌদি আরব থেকে আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতিদিন গড়ে ৬০ লাখ ৬৬ হাজার ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল রফতানি হয়েছিল। সে হিসাবে এক মাসের ব্যবধানে জ্বালানি পণ্যটির দৈনিক গড় রফতানি ৯৩ হাজার ব্যারেল বাড়িয়েছে সৌদি আরব।