কাগজ ডেস্ক: কাশ্মীরের পুলওয়ামার হামলা সম্পর্কে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, হামলা যে হবে সে কথা আগে থেকেই জানা ছিল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং তাঁর সরকারের। কিন্তু হামলা রুখতে ব্যবস্থা নেয়নি সরকার। জওয়ানদের মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করতেই বিজেপির বেশি আগ্রহ। খবর এনডিটিভির।
মমতা বলেন, ‘হামলার ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে খবর ছিল। গোয়েন্দা সংস্থা মারফৎ সেই খবর এসে পৌঁছেছিল। এরপরও কেন ব্যবস্থা নিলনা সরকার? সরকারে থাকা দল জওয়ানদের মৃতদেহ নিয়ে রাজনীতি করবে বলে তাঁদের মরতে দেওয়া হল।’
১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরে গাড়ি বোমা হামলায় দেশটির সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্সের (সিআরপিএফ) ৪৯ জন সেনা নিহত হয়। হামলার দায় স্বীকার করে পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। জম্মু-কাশ্মীরে স্বাধীনতার পর এত বড় সন্ত্রাসবাদী হামলা এর আগে হয়নি।
এই ঘটনার পর ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা দেখা দেয়। শুরু হয়েছে বাকযুদ্ধও। দুই দিন আগে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পাঠানের সন্তান হলে পুলওয়ামায় নিহত জওয়ানদের পরিবারের সঙ্গে অন্যায় হতে দেবেন না ইমরান খান। তাঁরা যাতে সুবিচার পান সেটা তিনি দেখবেন।’ জবাবে মোদীর উদ্দেশে শান্তির বার্তা দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, শান্তি শান্তি স্থাপনের সুযোগ দিন।