বাংলাদেশ ডেস্ক: রাশিয়ার এনার্জি জায়ান্ট গজপ্রম গ্যাস সরবরাহ বন্ধে ২০ মে ফিনল্যান্ডের জন্য চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েছিল। শনিবার গজপ্রম সেটি কার্যকর করল।

ফিনিশ গ্যাস সিস্টেম অপারেটর বলেছে, পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে জ্বালানির অর্থ পরিশোধ সর্বশেষ বিরোধের জেরে এমন পদক্ষেপ নিয়েছে রাশিয়া।

মার্চ মাসের প্রথম দিকে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা করেছিলেন, যেসব অবন্ধুসুলভ দেশ রাশিয়ার কাছ থেকে গ্যাস আমদানি করতে চায় তাদেরকে ডলার বা ইউরোর পরিবর্তে রুবলের মাধ্যমে গ্যাসের দাম পরিশোধ করতে হবে। ফিনল্যান্ড শর্ত না মানায় এ পদক্ষেপ।

ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন গ্যাসের পাইকারি বিক্রেতা গাসুম শুক্রবার জানায়, গ্যাজপ্রম সতর্ক করেছে যে শনিবার সকালে গ্রিনিচ মান সময় ৪টা গ্যাস থেকে প্রবাহ বন্ধ করা হবে।

এর আগে গত রোববার ফিনল্যান্ডে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ করেছিল রাশিয়া। ন্যাটোতে যোগ দিলে প্রতিশোধ নেয়ার হুঁশিয়ারিও দিয়েছিল। তবে গ্যাস বন্ধের কারণ জানতে চাইলে রুবলে মূল্য পরিশোধের দিকে ইঙ্গিত করে রাশিয়া।

এদিকে, ন্যাটো স্পষ্ট করেছে যে সম্ভবত আগামী কয়েক মাসের মধ্যে ফিনল্যান্ড ও সুইডেনকে জোটের সদস্য হিসেবে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হবে।

উভয় নর্ডিক দেশই ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য। তাদের বাহিনী আর্কটিক যুদ্ধে দক্ষ এবং নিয়মিতভাবে ন্যাটোর সামরিক মহড়ায় অংশ নেয়। তারা রাশিয়ার বিশাল সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখা বাল্টিক এবং উত্তর ইউরোপে জোটের ক্ষমতাকে উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়িয়ে তুলবে।

সামরিক প্রযুক্তিগত প্রতিক্রিয়া’র নামে হুমকি দিয়ে রাশিয়া বলেছে, ফিনল্যান্ড ও সুইডেন যদি ন্যাটোতে যোগ দেয় রাশিয়া তার ছিটমহল কালিনিনগ্রাদে পারমাণবিক অস্ত্র মোতায়েন করবে।
সূত্র : আলজাজিরা

Previous articleএগারোসিন্ধুরের ধাক্কায় নিহত ৩
Next articleকলাপাড়ায় মাস্ক ও হাত ধোঁয়ার সাবান বিতরণ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।