বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বাংলাদেশে নির্বাচনের আগের দিন ‘ব্যালট বাক্স ভর্তি’ করার পুনরাবৃত্তি চান না বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি। তিনি বলেছেন, এ রকম ঘটনা তিনি অন্য কোনো দেশে কখনো শোনেননি।

 

সোমবার (১৪ নভেম্বর) ঢাকার একটি হোটেলে আয়োজিত ‘মিট দ্য অ্যাম্বাসেডর’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

জাপানি রাষ্ট্রদূত বলেন, তারা আশা করছেন বাংলাদেশের আগামী জাতীয় নির্বাচন সব প্রধান রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা আশা করি আগামী নির্বাচন আরো ভালো হবে। এখানে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন করতে হবে। এটা আমার দৃঢ় আশা।’

রাষ্ট্রদূত বলেন, তিনি জানেন নির্বাচন কমিশন একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের লক্ষ্যে কাজ করছে এবং বাংলাদেশ সরকারও বলছে একটি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে। এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

একইসাথে রাষ্ট্রদূত বলেন, এটি এমন একটি বিষয় যা রাজনৈতিক দলগুলোর সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত। কিন্তু প্রত্যাশা হলো প্রধান রাজনৈতিক দলগুলো অংশগ্রহণ করবে। নির্বাচনটি অংশগ্রহণমূলক হবে।

নাওকি বলেন, তিনি ‘ব্যালট বাক্স ভর্তি’ করার ঘটনা সম্পর্কে শুনেছেন এবং আগের রাতে কিছু পুলিশ ব্যালট বাক্সে ভর্তি করে দিয়েছে যা তিনি অন্য কোনো দেশে কখনো শোনেননি।

তিনি বলেন, ‘ব্যালট বাক্সে ভরাট করার’ পুনরাবৃত্তি করা উচিত নয়।

২০১৮ সালের নির্বাচনের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত নাওকি বলেন, ঢাকায় জাপানি দূতাবাস একটি বিবৃতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিল যা তার দেশের জন্য খুবই অস্বাভাবিক ছিল। যদিও সেটিতে সহিংসতার বিষয়টিতে বেশি দৃষ্টি গুরুত্ব দেয়া হয়েছিল।

সেন্টার ফর গভর্নেন্স স্টাডিজ (সিজিএস) ফ্রেডরিখ-এবার্ট-স্টিফটুং (এফইএস) বাংলাদেশের সহযোগিতায় অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সেন্টার ফর গভর্নেন্স স্টাডিজের নির্বাহী পরিচালক জিল্লুর রহমান।

Previous articleঅর্থের অভাবে চিকিৎসা হচ্ছে না ব্লাড ক্যান্সারে আক্রান্ত বাউফলের এক মেধাবী শিক্ষার্থীর
Next articleরাজশাহীর বাজারে নকল প্রসাধনীর ছড়াছড়ি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।