বাংলাদেশ ডেস্ক: মালয়েশিয়ায় অভিবাসন বিভাগের যৌথ অভিযানে ১৭২ জন বাংলাদেশীসহ বিভিন্ন দেশের ২১৩ জন অভিবাসীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আটককৃতদের মাধ্যে ৩ জন নারীও রয়েছে।

বুধবার কুয়ালালামপুরের সেতাপার্কের ওয়াংসা মাজুতে অবস্থিত ২টি নির্মাণ প্রকল্পে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। দেশটির জাতীয় সংবাদমাধ্যম ও অভিবাসন বিভাগের এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ অভিবাসন আইনের অপব্যহার ও করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধি এবং স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম (এসওপি) লঙ্ঘন করেছে। অনেকের ওয়ার্ক পারমিট আছে কিন্তু সেগুলো কনস্ট্রাকশন কাজের নয়। এগুলো প্লানটেশন, ক্লিনার ও
রেস্টুরেন্টের কাজের জন্য বৈধ ছিল। তাই তাদেরও আটক করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগ (জেআইএম), রয়্যাল মালয়েশিয়ান পুলিশ (পিডিআরএম), ন্যাশনাল রেজিস্ট্রেশন ডিপার্টমেন্ট (জেপিএন) এবং মালয়েশিয়ান সিভিল ডিফেন্স ফোর্স (এপিএম), স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেমসহ (এসওপি) দেশটির অভিবাসন আইনের লঙ্ঘন করার দায়ে মোট ২৫৪ জন বিদেশীকর্মীকে চেক করা হয়েছিল। তাদের মধ্যে বিভিন্ন দেশের ২১৩ জন অভিবাসী কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আটককৃতদের মধ্যে ১৭২ জন বাংলাদেশী, ইন্দোনেশিয়ার ২০ জন, পাকিস্তানের ১০ জন, ভিয়েতনামের ৬ জন, ভারতের ৩ জন এবং মিয়ানমারের ২ জন নাগরিক রয়েছেন। তাদের সবাইকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুত্রাজায়ার ইমিগ্রেশন ডিপোতে রিমান্ডে নেয়া হয়েছে।

Previous articleতিস্তার পানি বিপদসীমার ৭০ সেন্টিমিটার উপরে, দিশেহারা পানিবন্দি মানুষ
Next articleটাঙ্গাইলে দুই স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।