কাগজ প্রতিবেদক: শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনায় রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে গিয়ে তোপের মুখে পড়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ। এসময় বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা মন্ত্রীর গাড়ি অবরোধ করে ‘উই ওয়ান্ট জাস্টিস’ শ্লোগান দিতে থাকে।

এক পর্যায়ে মন্ত্রীও পিছু হটতে বাধ্য হন। শিক্ষার্থীদের শ্লোগানের মুখে গাড়ি থেকে বের হয়ে আসেন তিনি। এ সময় প্রায় ২০ মিনিট ধরে তাদের সঙ্গে কথা বলেন এবং ঘটনার বিচারের আশ্বাস দেন শিক্ষামন্ত্রী।
তিনি বলেন, ইতোমধ্যে এই ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলেই দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
মন্ত্রীর আশ্বাস পেয়ে পথ ছেড়ে দেয় শিক্ষার্থীরা।

এর আগে ভিকারুননিসার অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌসকে ঘটনার জন্য ভর্ৎসনা করেন মন্ত্রী।

গতকাল সোমবার পরীক্ষায় খারাপ করায়, নবম শ্রেণির ‘ক’ শাখার ছাত্রী অরিত্রি অধিকারীর সামনেই তার বাবাকে ডেকে অপমান করেন এক শিক্ষক। এই ঘটনায় অভিমান করে আত্মহত্যা করে অরিত্রি।

নিহতের বাবার নাম দিলীপ অধিকারী। তার বাসা রাজধানীর শান্তিনগরে।

জানা গেছে, সকাল থেকেই ভিকারুন্নেসায় জড়ো হতে থাকে শিক্ষার্থীরা। তারা ঘটনার বিচারের দাবিতে বিভিন্ন ধরনের শ্লোগান দিতে থাকে।

এর আগে বেলা ১১টায় অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌস শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষককে এরই মধ্যে (সোমবার রাতে) সাময়িকভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে এবং ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, কমিটিকে আগামী তিন দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। প্রতিবেদন পেলেই দায়ীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।