কাগজ প্রতিনিধি: রাজধানী ঢাকার অদূরে আশুলিয়ায় একটি সোয়েটার কারখানার সূতার গুদামে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে আশুলিয়া ডিইপিজেডের ফায়ার সার্ভিসের ৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। এ খবর লেখা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

সোমবার সন্ধ্যা ৬ টায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের আশুলিয়ার বাইপাইলে করিমসুপার মার্কেটের ৫ম তলা ভবনের আন্ডারগ্রাউন্ডের আনজির এপ্যারেলেস লিঃ নামে সোয়েটার কারখানার সূতার গুদামে এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।
এদিকে অগ্নিকাণ্ডের পর মার্কেটের নীচতলায় থাকা কেমিক্যাল দোকানসহ বিভিন্ন দোকানপাটের মালামাল দ্রুত সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করতে দেখা গেছে দোকান মালিকদের।

ডিইপিজেড ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন কর্তকর্তা আবদুল হামিদ জানান, খবর পেয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেন তারা। তবে সরু গলি ও কাজ করার মতো জায়গা না থাকায় আগুন নেভাতে সমস্যায় পড়েছেন তারা। দেয়াল ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে কাজ করতে হচ্ছে তাদের। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

এছাড়া আগুনের সূত্রপাত কিভাবে হয়েছে সে বিষয়েও নিশ্চিত করতে পারেনি ফায়ার সার্ভিস। তবে একটি অসমর্থিত সূত্র জানায়, কারখানার উত্তর পশ্চিম পাশে শান্তি মা নামে একটি খাবার হোটেল রয়েছে। ওই হোটেলের রান্নাঘর রয়েছে হোটেলের পিছনে। সেখান থেকে আগুন ডাস্টের মাধ্যমে ওই গুদামে ছড়িয়ে পড়তে পারে এমন ধারণা করছেন অনেকে।
আবার কেউ কেউ বলছেন, হয়তোবা কারখানাটির সুতার গুদাম ঘরের অভ্যন্তরে কেউ বিড়ি বা সিগারেট পান শেষে ফেলে রাখার কারণে আগুন লাগতে পারে। আবার কেউ বলেছেন বৈদ্যুতিক শট-সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হতে পারে।

এর আগে শান্তি মা হোটেলে অগ্নিকাণ্ডে রান্নার কাজে নিয়োজিত এক বাবুর্চি আগুনে পুড়ে নিহত হয়েছিলেন।

এদিকে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।