কাগজ প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমা দেয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের সংঘর্ষ হয়েছে। সোমবার দুপুরে সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও দলীয় প্রার্থী মতিয়ার রহমান গাউস এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অলিদ ইসলামের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় উভয় পক্ষের নেতাকর্মীদের পাল্টা-পাল্টি মিছিল বের হয়।

মিছিলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের পাল্টা-পাল্টি সংঘর্ষ বাধে। এতে আহত হন উভয় পক্ষের ১৫ জন নেতাকর্মী। এ ঘটনায় আহতদের বাসাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ঘটনার পর বাসাইল প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন ডেকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাজী মতিয়ার রহমান গাউস বলেন, কাজী অলিদের নেতৃত্বে তার সমর্থকরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। এসময় আমার ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের অফিসে হামলা চালিয়ে বঙ্গবন্ধু এবং শেখ হাসিনার ছবিসহ অফিস ভাঙচুর করে তারা। এ ঘটনায় আমাদের ১০ জন নেতাকর্মী আহত হন।

অপরদিকে, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী অলিদ ইসলাম বলেন, যেহেতু সবার জন্য নির্বাচন উন্মুক্ত করেছে কেন্দ্র সেহেতু আমি নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আমরা মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার জন্য বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এলে হাজী গাউসের সমর্থকরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমার পাঁচজন নেতাকর্মী আহত হন। বঙ্গবন্ধুর ছবি তারাই ভেঙে আমাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছেন। দলীয় সভাপতি হিসেবে এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি আমি।

বাসাইল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম তুহিন আলী বলেন, সংঘর্ষের সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উভয় পক্ষের সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বাসস্ট্যান্ড এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংঘর্ষের ঘটনায় কেউ অভিযোগ করলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।