হুমায়ুন কবির: হাওরের এলংছিয়া খালে বাঁধ দেওয়া নিয়ে বিরোধের জের ধরে বুধবার (১০ এপ্রিল) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নেত্রকোণার কেন্দুয়ার মামুদপুর গ্রাম ও মদন উপজেলার চন্দ্রতলা গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়েছে। এতে মামুদপুর গ্রামের কদর আলীর ৬ টি গরু ছিনিয়ে নেয় এবং তার ছেলে এনামুল হককে চন্দ্রতলা গ্রামের আবু বক্কর ও তরুন গং মারাত্মক আহত করে বলে অভিযোগ উঠেছে। অপরদিকে গত রবিবার (৭ এপ্রিল) মদন উপজেলার চন্দ্রতলা গ্রামের ৩টি গরু মামুদপুর গ্রামের হাওর রক্ষক দুলাল মিয়া কর্তৃক আটক রাখার অভিযোগ করেছে চন্দ্রতলা গ্রামবাসী। বুধবার সংঘর্ষের খবর পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (কেন্দুয়া সার্কেল) মাহমুদুল হাসান, ওসি ইমারত হোসেন গাজী, মদন থানার ওসি রমিজ উদ্দিন সঙ্গীয় ফোর্সসহ দুই থানার গন্যমান্য ব্যক্তিরা ঘটনাস্থলে ছুটে যান। সরেজমিনে গিয়ে জানাযায় গত রোববার কেন্দুয়া এলাকায় এলংছিয়া হাওরের খালের মাঝে প¦ার্শবর্তী মদন থানার চন্দ্রতলা গ্রামের তরুন মিয়া আবু বক্করসহ ৭/৮ জন মাছ শিকারের জন্য খালে বাঁধ দিতে চেষ্টা করে। বাঁধের কারণে ফসলের ক্ষতি হবে দাবি করে মামুদপুর গ্রামের কয়েকজন বাঁধা দেন। এতে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। এ দিনই চন্দ্রতলা গ্রামের কয়েকজন মামুদপুর গ্রামের স্কুল ছাত্র কাইয়ুম ও স্বজন নামে দুইজনকে মারধর করে চলে যায়। পরে সন্ধ্যার দিকে চন্দ্রতলা গ্রামের ৩টি গরুর মালিক না পাওয়ায় মামুদপুর গ্রামের হাওর রক্ষক দুলাল মিয়া তার জিম্মায় রাখে। এসব ঘটনায় ৩দিন ধরে নদীর দুই পাড়ের দুই গ্রামবাসীর মধ্যে চরম উত্তেজনা চলে আসছিল। এরই প্রেক্ষিতে বুধবার সকালে নদীতে গরুর গোসল করাতে নিয়ে গেলে মামুদপুর গ্রামের কদর আলী ছেলে এনামুল হক কে চন্দ্রতলা গ্রামের কয়েকজন মিলে মারধর করে ৬টি গরু ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় দুই পক্ষের লোকেরা দেশীয় অস্ত্র স্বস্ত্র নিয়ে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ায় লিপ্ত হয়। কেন্দুয়া থানার ওসি ইমারত হোসেন গাজী এবং মদন থানার ওসি রমিজ উদ্দিন জানান, আমরা দুই থানার পুলিশসহ উভয় এলাকার গণ্যমাণ্যদের কে ডাকছি। দুই পক্ষের ছিনিয়ে নেওয়া গরুগুলো ফেরত দেওয়ার মাধ্যমে মীমাংসার আলোচনা চলছে। আইন-শৃঙ্খলা বজায় রাখার স্বার্থে আমরা বেশ কিছু পদক্ষেপ নিচ্ছি। আশা করছি বিরোধটির নিষ্পত্তি হবে।

Previous articleউল্লাপাড়ায় প্রমথ চৌধুরীর স্বাক্ষর জাল করে জমি দখল: আদালতে সরকারের মামলা
Next articleপ্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড এখনো অন্ধকারে : যা বললেন সচিব
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।