বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদী পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা ঠেকাতে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী উপজেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক দিদারুল আহসান খানের পক্ষে মাঠে নেমেছেন পৌর আ’লীগ সভাপতি আলমগীর হোসেন হিরণ হাওলাদারসহ নেতাকর্মীরা। বৃহস্পতিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে দিনব্যাপী নেতাকর্মীরা পৌরসভার ৪,৫ ও ৬নং ওয়ার্ডে ব্যাপক গণসংযোগ করে মোবাইল প্রতীকের পক্ষে ভোট চান। মুলাদী পৌরসভা নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগেই আওয়ামী লীগের ৯ নেতা মনোনয়ন চেয়ে মাঠে নামেন। কিন্তু তাদের সাথে কোনো সমন্বয় না করেই বর্তমান মেয়র শফিক উজ্জামান রুবেলকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। তফসিল ঘোষণার পরে আওয়ামী লীগের ৫ বিদ্রোহী প্রার্থী মনোনয়ন দাখিল করেন। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ মুহুর্তে ৪জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা থেকে সরে দাড়ালেও উপজেলা শ্রমিক লীগের আহ্বায়ক দিদারুল আহসান খান মোবাইল প্রতীক নিয়ে ভোটের মাঠে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রথম দিকে আ’লীগ নেতাকর্মীরা গোপনে প্রচারণা চালালেও বৃহস্পতিবার সকালে পৌর আ’লীগ

সভাপতি আলমগীর হোসেন হিরণ হাওলাদার, উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ্ব ছালেহ উদ্দীন হাওলাদারসহ উপজেলা ও পৌর আ’লীগ নেতাকর্মীরা স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে প্রকাশ্যে প্রচারণার চালিয়ে ভোট প্রার্থণা করেন। পৌর আ’লীগ নেতাকর্মীরা জানান বর্তমান মেয়র কর্মীদের মূল্যায়ন না করায় অধিকাংশ নেতাকর্মীরা তার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছেন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী দিদারুল আহসান খানের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পেয়েছে।