তাবারক হোসেন আজাদ: মোবাইল কিনে না দেয়ায় মায়ের সাথে অভিমান করে বিষ পানে নবম শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। ওই মেয়েটি এখন সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসায় রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (৪ জুন) সন্ধায় লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার কেরোয়া ইউপির উত্তর কেরোয়া গ্রামের খলিফার বাড়ীতে। আহত পাখি আক্তার একই গ্রামের রিকসা চালক কবির ও গৃহিনী শেফালি বেগমের বড় মেয়ে ও স্থানীয় এমএম কাদের একাডেমির নবম শ্রেণীর ছাত্রী। হাসপাতালে চিকিৎসাধিন মেয়েটির মা শেফালী বেগম বলেন, করোনাকালীন সময়ে স্কুল বন্ধ থাকায় কাগজের প্যাকেট তৈরীর কাজে মামাকে সহযোগিতা করছিলো মেয়েটি। এজন্য মেয়েটিকে তার মামা মাসে তিন হাজার টাকা বেতনও দেন। আমার স্বামী গরিব রিকশা চালক। গত কয়েকদিন ধরে মেয়েটি তাকে মোবাইল কিনে দেয়ার জন্য চাপসৃষ্টি করে আসছিলো। এনিয়ে শুক্রবার সন্ধায় মেয়েটিকে মারধর করি আমি। এতে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে আতœহত্যার চেষ্টা করে মাটিতে লুটে পড়ে। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে রায়পুর সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় রায়পুর সরকারি হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার মিঠুন চক্রবর্তী বলেন, মেয়েটি এখন নিরাপদ রয়েছে। তাকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তিনি সকল ম্#া৩৯;কে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানান।

Previous articleতাহিরপুরে যাদুকাটা নদীতে টাস্কফোর্সের অভিযান
Next articleরায়পুরে যুবলীগ নেতার স্ত্রীকে পিটিয়ে জখম
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।