বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মুলাদীতে জোড়পূর্বক প্রতিপক্ষের জমি দখল ও হয়রানি করার অভিযোগ উঠেছে এক মুক্তিযোদ্ধা ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে। উপজেলার বাটামারা ইউনিয়নের সেলিমপুর গ্রামের মৃত জামদের আলী হাওলাদালের পুত্র মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সামছুল হক হাওলাদার একই গ্রামের আলহাজ্ব আঃ মাজেদ আকন ও তার লোকজনের জমি দখল করে তাদের হয়রানি করছে বলে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করেছেন।

সেলিমপুর গ্রামের মৃত আঃ খালেক আকনের পুত্র আলহাজ্ব আঃ মাজেদ আকন জানান, ২০১৫ সালে সেলিমপুর মৌজায় ৩০৫নং খতিয়ানের ১৫২১নং দাগে জমি ক্রয় করে ভোগদখল করে আসছিলেন। কিছুদিন আগে সামছুল হক মাস্টার ও তার ভাইয়েরা ওই জমির মালিকানা দাবী করেন। সামছুল হক মাস্টারের দাবী তিনি ২০২০ সালে আফাজ উদ্দীনের ওয়ারিশদের কাছ থেকে ওই জমি ক্রয় করেছেন। দুই গ্রুপ একই জমির মালিকানা দাবী করায় তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়। সংঘাত সৃষ্টির আশংকায় বোয়ালিয়া ফাঁড়ি পুলিশের মধ্যস্থতায় সালিশ বৈঠকের আয়োজন করা হয়। সালিশরা জানান, আফাজ উদ্দীন ১৯৭৫ সালে তার স্ত্রী ফজিলাতুন নেছাকে জমি দলিল দেয়। ফলে সামছুল হক মাস্টারের জমি প্রাপ্যতা না থাকায় আঃ মাজেদ আকনকে জমি বুঝিয়ে দিলে তিনি ওই জমিতে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শুরু করে। সামছুল হক মাস্টার মুক্তিযোদ্ধা হওয়ায় তিনি সালিশদের রায় উপেক্ষা করে আঃ মাজেদ আকনের সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেলে লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি করেছেন। মাজেদ আকন জানান, বর্তমানে সামছুল হক মাস্টার ও তার লোকজন তাদের জমির সীমানার কাছে টয়লেট স্থাপন করছেন। এতে তাদের বাসস্থান ক্ষতিগ্রস্থ হবে। এব্যাপারে মুক্তিযোদ্ধা সামছুল হক মাস্টার জানান, তিনি কারও জমির সীমানা প্রাচীর ভেঙ্গে ফেলেননি। তার ক্রয়কৃত জমিতে আঃ মাজেদ আকন ও তার লোকজন দেয়াল তোলায় তা ভেঙ্গে দিয়েছেন। আর তার ক্রয়কৃত জমিতেই বাথরুম দিচ্ছেন।

Previous articleনানার বাড়িতে বেড়াতে এসে ঈশ্বরদীতে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
Next articleকালিহাতীতে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ২১
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।