জয়নাল আবেদীন: রংপুর বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে করোনা সংক্রমিত আরও ৩শ৩০ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। চলতি মাসের সতেরো দিনে বিভাগে করোনায় প্রাণ হারাল ২শ জন।

শুক্রবার তুলনায় বিভাগে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত্যু বাড়লেও কমেছে শনাক্ত। শনিবার দুপুরে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) আবু মো. জাকিরুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।তিনি জানান, শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মারা যাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে রংপুর জেলার তিনজন, লালমনিরহাটের দুইজন, পঞ্চগড়ের দুইজনসহ দিনাজপুর ও গাইবান্ধার একজন করে রয়েছেন।একই সময়ে বিভাগে ১ হাজার ১শ৭৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৩শ৩০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে দিনাজপুরের ১শ৭১ জন, রংপুরের ১শ০৮ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ১০ জন, নীলফামারীর ৭ জন, কুড়িগ্রামের ৫ জন, গাইবান্ধার ২৭ ও লালমনিরহাটের ২ জন রয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত বিবেচনায় আক্রান্তের হার ২৮ দশমিক ১১ শতাংশ।নতুন করে মারা যাওয়া নয়জনসহ বিভাগে করোনায় মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭শ২৫ জনে। এর মধ্যে দিনাজপুর জেলার ২শ৩৮ জন, রংপুরের ১শ৪৭, ঠাকুরগাঁওয়ের ১শ৩৪, নীলফামারীর ৫১, লালমনিরহাটের ৪৫, কুড়িগ্রামের ৩৮, পঞ্চগড়ের ৩৭ ও গাইবান্ধার ৩৫ জন রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ৩শ৭৪ জন।এছাড়াও নতুন শনাক্ত ৩শ৩০ জনসহ বিভাগে ৩৬ হাজার ১শ০৮ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দিনাজপুর জেলায় ১১ হাজার ১শ৪৪ জন, রংপুরের ৭ হাজার ৮শ৪৫ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ৫ হাজার ৪০ জন, গাইবান্ধার ২ হাজার ৯শ৫৯ জন, নীলফামারীর ২ হাজার ৭শ৩৬ জন, কুড়িগ্রামের ২ হাজার ৫৮৪ জন, লালমনিরহাটের ১ হাজার ৯৩৩ জন এবং পঞ্চগড়ের ১ হাজার ৮শ৬৭ জন রয়েছেন।করোনাভাইরাস শনাক্তের শুরু থেকে শুক্রবার পর্যন্ত রংপুর বিভাগে ১ লাখ ৮৭ হাজার ৭শ৬২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। বিভাগের আট জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে দিনাজপুর, রংপুর ও ঠাকুরগাঁও জেলায়। এছাড়া ভারতীয় সীমান্ত ঘেঁষা জেলাগুলোত বেড়েছে শনাক্ত ও মৃত্যু।

Previous articleরাজারহাটের জংলি টগর ফুল শুভ্রতা ছড়াচ্ছে শহরে
Next articleপাঁচবিবিতে ইয়াবাসহ মেম্বার পদের দোয়া প্রার্থী আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।