বাংলাদেশ প্রতিবেদক: জামায়াতুল মুদাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)’ দিনাজপুর ও নীলফামারী জেলার দাওয়াহ শাখার অন্যতম প্রধান হাফেজ মো. ওয়াহিদুল ইসলাম (৩৮)-কে রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের এন্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)।

ওয়াহিদুল ইসলাম দিনাজপুরের খানাসামা থানার মন্ডলের বাজার কুমুড়িয়া হাফিজিয়া মাদরাসার হেফজ্খানার শিক্ষক বলে জানিয়েছে এটিইউ।

বৃহস্পতিবার এন্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ) মিডিয়া অ্যান্ড অ্যাওয়ারনেস উইংয়ের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান তাকে গ্রেফতারের বিষয়টি বাসসকে নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে রাজধানীর গাবতলী আরিচা হাইওয়ের এসএস ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়। তার নিকট থেকে একটি মোবাইল ফোন সেট ও দু’টি সীম কার্ড জব্দ করা হয়।

এটিইউ পুলিশের এ কর্মকর্তা জানান, ওয়াহিদুল ইসলাম মাদ্রাসায় শিক্ষকতার আড়ালে তিনি দিনাজপুর ও নীলফামারি জেলার জেএমবি’র দাওয়াহ শাখার অন্যতম প্রধান হিসেবে দাওয়াতি ও সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিল।

এটিইউ’র পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আসলাম খান জানান, গত ৪ ডিসেম্বর নীলফামারী জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে জেএমবি’র ৫ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে নীলফামারী সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়। পরবর্তীতে গ্রেফতারকৃতদের পুলিশ হেফাজতে এনে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে গত ১১ ডিসেম্বর এন্টি টেররিজম ইউনিট এর একটি গোয়েন্দা দল নীলফামারি ও দিনাজপুর অঞ্চলে অভিযান চালিয়ে জেএমবি’র ৩ সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করে।

এ ঘটনায় নীলফামারী সদর থানায় মামলা দায়েরের পর আসামিদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এরপর থেকে ওই এলাকার জেএমবি’র সক্রিয় সদস্যরা ঢাকা এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় আত্মগোপনে চলে যায়।

Previous articleভারতে ট্রেন দুর্ঘটনা: বহু হতাহতের আশঙ্কা
Next articleপরিবহন মালিকদের দাবি মেনে শনিবার থেকে ‘যত সিট তত যাত্রী’
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।