ওসমান গনি: কুমিল্লার চান্দিনায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদ’র ছোড়া গুলিতে আহত হওয়া ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের দুই কর্মীর অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়েছে। পৃথক অস্ত্রোপচারে আহত মাহমুদুল হাসান জনি’র ডান হাত থেকে ও নাজমুল হাসান নাঈম এর ডান পা থেকে দুইটি গুলি বের করা হয়।

মঙ্গলবার (১০ মে) সকালে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটারে পৃথক অস্ত্রোপচারে গুলি বের করার পাশাপাশি গুলিতে হাড় ভেঙ্গে যাওয়া দুই যুবকের অপারেশন সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান চিকিৎসক।

কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ক্যাজুয়েলিটি বিভাগের সহকারি রেজিস্টার ডা. মাজহারুল আলম জানান, সকালে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে গুলি বের করাসহ গুলির আঘাতে ভেঙ্গে যাওয়া হাত ও পায়ের হাড় সংযোজনে ইনপ্লান্ট করা হয়েছে। সহযোগি অধ্যাপক ডা. লিটন কুমার সাহা অস্ত্রোপচার করেন। উভয়ই শঙ্কামুক্ত ও চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান তিনি।

এদিকে গুলির ঘটনায় অভিযুক্ত লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি- এলডিপি’র মহাসচিব ও সাবক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদ এর শাস্তির দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে চান্দিনা।

কুমিল্লা উত্তর জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. লিটন সরকার এর নেতৃত্বে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাকর্মীরা সোমবার ঘটনার পর থেকে চান্দিনা উপজেলা সদর, চান্দিনা থানা কার্যালয়সহ উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল করেন। বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীরা রেদোয়ান আহমেদ এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

এবিষয়ে চান্দিনা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মো. সামিরুল খন্দকার রবি বলেন- ‘আমরা প্রশাসনের নিকট রেদোয়ান আহমেদ এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।’

চান্দিনা উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন আহমেদ আলম ওই গুলির ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। এলডিপি’র মহাসচিব ও সাবক প্রতিমন্ত্রী ড. রেদোয়ান আহমেদ কে সন্ত্রাসী বলে উল্লেখ করে তিনি সামাজিক যোগাযাগ মাধ্যমে অভিযুক্ত রেদোয়ান আহমেদদের শাস্তি দাবি করেন।

অপরদিকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছাত্রলীগ ও স্বেচ্ছাসেবকলীগের দুই কর্মীর চিকিৎসার খোঁজ নিতে হাসপাতালে গিয়েছেন কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক ও চান্দিনা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা তপন বক্সী এবং চান্দিনা পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব মো. শওকত হোসেন ভূইয়া। তারা গুলির ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার (৯ মে) লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ এর ছোড়া গুলিতে চান্দিনা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের আওয়ামী লীগ নেতা রূপনগর এলাকার বাসিন্দা জাহাঙ্গীর আলম সরকারের ছেলে মাহমুদুল হাসান জনি সরকার (২২) ও চান্দিয়ারা গ্রামের নূরুল ইসলাম এর ছেলে নাজমূল হোসেন নাঈম (২৫) গুলিবিদ্ধ হন। পরে তাদেরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার (৯ মে) বিকাল ৪টায় চান্দিনা রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ক্যাম্পাস-২ মমতাজ আহমেদ ভবন এ কলেজ ছাত্রলীগ ও পৌর এলডিপি পাল্টাপাল্টি ঈদপুনর্মিলনীর আয়োজন করেন। দুপুর ১টার পর থেকে ছাত্রলীগের আয়োজনে স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও যুবলীগ নেতা-কর্মীরা অনুষ্ঠান স্থলে উপস্থিত হতে শুরু করে। দুপুর আড়াইটায় এলডিপি মহাসচিব ড. রেদোয়ান আহমেদ কলেজ ক্যাম্পাস-২ প্রধান ফটকের সামনে গেলে স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতাদের সাথে কথা হয়। এসময় স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতৃবৃন্দ একই স্থানে এলডিপি’র প্রোগ্রাম করতে নিষেধ করেন এবং ছাত্রলীগও প্রোগ্রাম করবেন না বলে জানান। এসময় তিনি গাড়ি নিয়ে ফিরে যাওয়ার সময় কোন এক ছাত্রলীগ কর্মী রেদোয়ান আহমেদ এর গাড়িতে তরমুজ দিয়ে ঢিল ছুড়ে। এসময় রেদোয়ান আহমেদ গাড়ির জানালা খুলে পরপর দুইটি গুলি করেন।

Previous articleফুলবাড়ীতে পুকুরের পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
Next articleঈশ্বরদীতে ভারতীয় নাগরিক হত্যায় প্রেমিকার যাবজ্জীবন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।