মঙ্গলবার, জুলাই ২৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাগৌরীপুরে ২১ আগস্ট শালীহর গণহত্যা দিবসে মোমবাতি প্রজ্বালন ও পুষ্পমাল্য অর্পণ

গৌরীপুরে ২১ আগস্ট শালীহর গণহত্যা দিবসে মোমবাতি প্রজ্বালন ও পুষ্পমাল্য অর্পণ

মুহাম্মদ রায়হান উদ্দনি সরকার ঃ পুষ্পমাল্য র্অপণ, মলিাদ মাহফলি, কাঙালি ভোজ, আলোচনা ও স্মরণসভার মধ্যে দয়িে ২১ আগস্ট সোমবার ময়মনসংিহরে গৌরীপুরে শালহির গণহত্যা দবিস পালতি হয়ছে।ে

সোমবার বকিালে উপজলো নর্বিাহী র্কমর্কতা (ভারপ্রাপ্ত)আফসান আফরোজরে সভাপতত্বিে ও প্রসেক্লাবরে সাধারন সম্পাদক ও এসো গৌরীপুর গড়’ির সম্বনয়কারী আবু কাউসার চৌধুরী রন্টরি সঞ্চালনায় প্রধান অতথিি হসিাবে বক্তব্য রাখনে জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তযিোদ্ধ নাজমি উদ্দনি আহামদে। প্রধান বক্ততা উপজলো আওয়ামীলীগরে সভাপতি নলিুফার আন্জুম পপ,িউপজলো পরষিদরে মহলিা ভাইস চয়োরম্যান সালমা আক্তার রুব,ি মুক্তযিোদ্ধা সংসদরে সাবকে কমান্ডার আলহাজ্ব আব্দু রহমি, বীর মুক্তযিোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

আরো উপস্থতি ছলিনে মুক্তযিোদ্ধা,সাংবাদকি,রাজনতৈকি ব্যক্ত,িশহীদ পরবিারে সদস্য,সামাজকি সাংস্কৃতকি ও স্থানীয় এলাকাবাসী। আলোচনা সভা শষেে শহীদ পরবিাররে মাঝে নগদ র্অথ ও উপহার প্রদান করা হয়। সন্ধ্যায় শহীদ বদেীতে শহীদরে স্বরনে মোম বাতি প্রজ্জলন করা হয়। পরশিষেে স্বচ্ছোসবেী সংগঠন এসো গৌরীপুর গড়ি পৃথকভাবে শহীদরে স্বরনে শহীদ বদেতিে পুস্পমাল্য ও মোমবাতি প্রজ্জলন কর।ে

উল্লখ্যে য,ে ১৯৭১ সালরে এই দনিে পাক-বাহনিী ও তাদরে দোসররা বাড়ি থকেে ধরে নয়িে ব্রাশফায়ারে ময়মনসংিহরে গৌরীপুর উপজলোর গৌরীপুর ইউনয়িনরে ১৪ নরিীহ গ্রামবাসীকে হত্যা কর।ে পরে সখোনইে নহিত গ্রামবাসীদরে কবর দওেয়া হয়।

ওই সময় গ্রামবাসীরা পাক-বাহনিীর ব্রাস ফায়ারে গণশহীদরা হলনে- উপজলোর ২ নং গৌরীপুর ইউনয়িনরে শালহির গ্রামরে মোহনিী মোহন কর, জ্ঞানন্দ্রে মোহন কর, যোগশে চন্দ্র বশ্বিাস, নবর আলী, ক্ষরিদা সুন্দরী, শচীন্দ্র চন্দ্র বশ্বিাস, তারনিী কান্ত বশ্বিাস, খলৈাস চন্দ্র নমদাস, শত্রগ্ন নমদাস, রামন্দ্রে চন্দ্র সরকার, অবনী মোহন সরকার, দবেন্দ্রে চন্দ্র নমদাস, কামনিী কান্ত বশ্বিাস ও রায় চরণ বশ্বিাস। শালীহর গ্রামরে ১৪ জনকে হত্যার পর আগুনে পুড়য়িে দয়ো হয় গ্রামরে অনকে ঘরবাড়।িপাক হানাদার বাহনিীর গুলতিে শহীদ জ্ঞানন্দ্রে মোহন কররে ছলেে তৎকালীন ডা: বাদল চন্দ্র কর ঘরবাড়ি সহ পতিাকে হারয়িে নঃিস্ব হয়ে পাক বাহনিীর ভয়ে সুনামগঞ্জরে তাহরিপুর উপজলোর টকেরেঘাট সাব-সক্টেরে চলে যান। সখোনে তনিি মুক্তযিোদ্ধাদরে চকিৎিসা সবোর দায়ত্বিে ছলিনে।

পরর্বতীতে ডা: বাদল চন্দ্র কর তাহরিপুর উপজলো আওয়ামীলীগরে আমৃত্যু কোষাধ্যক্ষ হসিবেে দায়ত্বি পালন করনে।যুদ্ধকালীন সময়ে টকেরেঘাট সাব সক্টেরে মুক্তযিোদ্ধাদরে চকিৎিসা সবোয় নয়িোজতি র্স্বগীয় ডা : বাদল চন্দ্র কর এর ছলেে অমল কান্তি কর র্বতমানে তাহরিপুর উপজলো আওয়ামীলীগরে সাধারণ সম্পাদক হসিবেে দায়ত্বি পালন করছনে।
সুর্দীঘ এ সময়ে সরকাররে পালা বদল হয়ছেে অনকেবার। কন্তিু ১৯৭১ সালরে ২১ আগস্ট ময়মনসংিহরে গৌরীপুররে শালীহর গ্রামে পাকবাহনিীর গণহত্যায় শহীদ হওয়া ১৪ পরবিার আজও স্বীকৃতি পায়ন।ি সম্প্রতি শহীদ পরবিাররে পক্ষে লখিতিভাবে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে ময়মনসংিহ জলোর গৌরীপুর উপজলোর শালীহর গ্রামে ১৯৭১ সালরে মুক্তযিোদ্ধ চলাকালীন গণহত্যায় শহীদ পরবিাররে সদস্য হসিবেে স্বীকৃতি পাওয়ার আবদেন জানয়িছেনে শহীদ জ্ঞানন্দ্রে মোহন কর এর নাতি তাহরিপুর উপজলো আওয়ামীলীগরে সাধারণ সম্পাদক অমল কান্তি কর।

জ্ঞানন্দ্রে মোহন কর এর নাতি অমল কান্তি কর বলনে, পাক হানাদার বাহনিীর নর্মিম বুলটেরে আঘাতে একাত্তররে ২১ আগস্ট সদেনি আমার (পতিামহ) দাদা এবং তার আপন বড় ভাই মোহনিী মোহন কর শহীদ হয়ছেলিনে। স্বাধীনতার ৫১ বছর পরেয়িে গলেওে আজও আমরা শহীদ পরবিাররে স্বীকৃতি পাই ন।ি প্রধানমন্ত্রীর নকিট আবদেন সদেনি ঘাতকরে বুলটেরে আঘাতে শহীদ হওয়া সবগুলো পরবিারকে শহীদ পরবিাররে স্বীকৃতি দয়োর আকুল আবদেন জানাচ্ছনে।

স্বাধীনতার পর থকেে প্রতি বছর এ দবিস উপলক্ষে মুক্তযিোদ্ধা সংসদ ও গ্রামবাসীর উদ্যোগে এ বধ্যভুমতিে বভিন্নি আনুষ্ঠানকিতার মধ্য দয়িে শালহির গণহত্যা দবিস পালন করা হয়ে থাক।ে

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerkagoj.com.bd/
Ajker Bangladesh Online Newspaper, We serve complete truth to our readers, Our hands are not obstructed, we can say & open our eyes. County news, Breaking news, National news, bangladeshi news, International news & reporting. 24 hours update.
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments