সদরুল আইন: সোমবার শপথ নিতে যাওয়া মন্ত্রিসভায় বাদ পড়া মন্ত্রণালয় হারাতে যাওয়া বেশ কয়েকটি নামে রয়েছে বড় চমক। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বাদ পড়ছেন তোফায়েল আহমেদ এবং কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে মতিয়া চৌধুরীর বাদ পড়ার বিষয়টি নিশ্চিত।

এই দুই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন যথাক্রমে টাঙ্গাইল-১ আসনের আবদুর রাজ্জাক এবং রংপুর-৪ আসনের টিপু মুনসি।

গুঞ্জন আছে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের বাদ পড়া নিয়েও । এই দায়িত্ব পেতে পারেন চাঁদপুর-৩ আসনের দীপু মনি।

এদের মধ্যে টিপু প্রথমবারের মতো যুক্ত হচ্ছেন মন্ত্রিসভায়। আর বাকি দুই জন ২০০৯ থেকে ২০১৪ সালের মন্ত্রিসভায় ছিলেন। ওই কেবিনেটে রাজ্জাক ছিলেন খাদ্যমন্ত্রী আর দীপু পররাষ্ট্র মন্ত্রী।

কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে মতিয়া চৌধুরীর বাদ পড়াটা অভিনবই বলা যায়। আওয়ামী লীগের গত তিন মেয়াদেই এই দায়িত্বটা পালন করেছেন তিনি।

১৯৯১ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত বিএনপি শাসনামলে নজিরবিহীন সার সংকট সামাল দিতে তার ব্যাপক ভূমিকা রয়েছে। সৎ রাজনীতিক হিসেবেও তার পরিচিতি রয়েছে।

ভোলা-১ আসনের তোফায়েল আহমেদও ১৯৯৬ থেকে ২০০১ এবং গত পাঁচ বছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। তার জায়গায় টিপু মুনসির দায়িত্ব পাওয়াটাও চমকই বলা যায়।

পাঁচ বছর খাদ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা টাঙ্গাইল-১ আসনের আবদুর রাজ্জাক দশম সংসদ নির্বাচনের পর বাদ পড়ে যান। তাকে মতিয়ার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়ার বিষয়ে কোনো আলোচনা ছিল না।

ভোলা-১ আসনের তোফায়েল আহমেদও ১৯৯৬ থেকে ২০০১ এবং গত পাঁচ বছর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে ছিলেন। তার জায়গায় টিপু মুনসির দায়িত্ব পাওয়াটাও চমকই বলা যায়।

গত দুই মেয়াদে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে নানা সমালোচনার মুখে পড়েন সিলেট-৬ আসনের নুরুল ইসলাম নাহিদ।

এবার তিনি দায়িত্ব নাও পেতে পারেন বলে আগে থেকেই আলোচনা ছিল।

বাদ পড়া তিন জন মন্ত্রিসভা থেকে বাদ পড়ছেন নাকি তারা অন্য কোনো মন্ত্রণালয় পাচ্ছেন, এই বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়।

নতুন মন্ত্রীদের মধ্যে যাদের দপ্তরের বিষয়টি মোটামোটি নিশ্চিত, সেটা হলো গৃহায়ন ও গণপূর্তে শ ম রেজাউল করিম (পিরোজপুর-১),শিক্ষা উপ-মন্ত্রী হচ্ছেন মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল (চট্টগ্রাম-৯)।

নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের গোলাম দস্তগীর গাজী, নেত্রকোনা-২ আসনের আশরাফ আলী খান মৎস মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাচ্ছেন।

তবে তারা মন্ত্রী নাকি প্রতিমন্ত্রী সেই বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

গাজীপুর-১ আসনের আ ক ম মোজাম্মেল হক মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর দায়িত্বে টিকে যাচ্ছেন।