বাংলাদেশ প্রতিবেদক: প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) নির্বাচন কমিশনের কাছেই থাকা উচিত। এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গেলে ভোটার তালিকা নিয়ে সাংবিধানিক সংকট তৈরি হবে।

জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন কার্যক্রম নির্বাচন কমিশনকে ছেড়ে দিতে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের দেওয়া বক্তব্যের প্ররিপ্রেক্ষিতে রোববার (৩০ মে) তিনি এসব কথা বলেন।

কে এম নূরুল হুদা বলেন, এনআইডি নিয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে আমাদের সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি। এনআইডি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে গেলে তা সাংবিধানিক সংকটে পড়বে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৭ মে) এনআইডি নিবন্ধন কার্যক্রম নির্বাচন কমিশনকে ছেড়ে দিতে বলেছিল মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। এটি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের অধীনে ন্যস্ত থাকবে বলেও জানানো হয়েছিল। এই সংক্রান্ত একটি চিঠি ইস্যু করে বিষয়টি নির্বাচন কমিশনকে অবিহিত করা হয়েছে মন্ত্রিপরিষদের পক্ষ থেকে।

গত কয়েক মাস ধরেই এনআইডির কার্যক্রম ইসির কাছে থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে ন্যস্ত করার বিষয়টি আলোচনায় ছিল। তবে এই চিঠি ইস্যুর কারণে পদক্ষেপ অনেক দূর এগিয়ে গেল বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

২০০৮ সালে নির্বাচন কমিশনের উদ্যোগে দেশে প্রথমবারের মতো শুরু হয় ছবিসহ জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন কার্যক্রম। সাম্প্রতিক ভোটার তালিকায় রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ, ডা. সাবরিনা ও শাহেদের প্রতারণার দায়ে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের একাধিক এনআইডি কার্ড পাওয়া যাওয়ায় সমালোচনার মুখে পড়তে হয় নির্বাচন কমিশনকে।

Previous articleদেশে ফের করোনা সংক্রমণ বেড়েছে
Next articleঅবশেষে জমি পেল বাউল সম্রাট শাহ আবদুল করিমের পরিবার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।