বাংলাদেশ প্রতিবেদক: মোদিবিরোধী বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে সাধারণ মুসল্লিদের সঙ্গে ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষে রাজধানীর বায়তুল মোকাররম এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে।

এতে মুসল্লি, পথচারী, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতাকর্মীসহ প্রায় অর্ধশতাধিক লোক আহত হয়েছেন।

জানা গেছে, শুক্রবার জুমার নামাজের মোনাজাত শেষে মুসল্লিদের একাংশ মোদিবিরোধী বিক্ষোভ শুরু করলে এ সংঘর্ষ বাধে। মুসল্লিরা মোদিবিরোধী স্লোগান দেওয়ার কিছুক্ষণ পরই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মসজিদের উত্তর পাশের ফটকে মিছিলকারীদের ওপর লাঠিসোঁটা নিয়ে হামলা চালান।

প্রায় পাঁচ মিনিট ধরে তারা মিছিলকারীদের মারধর করেন। এতে বিক্ষোভকারীরা পিছু হটে মসজিদের ভেতরে ঢুকে পড়ে। কিছু সময় পর বিক্ষোভকারীরা ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের ওপর পাল্টা হামলা চালায়।

এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়া চলতে থাকে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিতে পুলিশ মসজিদের দিকে টিয়ার গ্যাস ও ফাঁকা গুলি ছোড়ে।

বর্তমানে পুরো এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

সর্বশেষ পাওয়া খবরে জানা যায়, বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত বায়তুল মোকাররমের দক্ষিণ গেটে একদল মুসল্লি বিক্ষোভ করছেন। তারা সফররত মোদির বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দিচ্ছেন।

ঢামেক সূত্রে জানা যায়, বায়তুল মোকাররমে সংঘর্ষের ঘটনায় অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে পথচারী, মুসল্লি, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা রয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকেই চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। একজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, মোদিবিরোধী বিক্ষোভে অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। আহতরা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

Previous articleরোহিঙ্গা সংকট সমাধানে বাংলাদেশের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি মোদির
Next articleহাটহাজারীতে পুলিশের সঙ্গে হেফাজতে ইসলামের কর্মীদের সংঘর্ষে নিহত ৪
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।