বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানকে অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি দিয়েছে সরকার। একই সঙ্গে তাকে টুরিস্ট পুলিশের প্রধানের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

সোমবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের এক প্রজ্ঞাপনে এ পদোন্নতি দেওয়া হয়।

এর আগে টুরিস্ট পুলিশের প্রধানের দায়িত্বে ছিলেন অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ আলী মিয়া। বর্তমানে তিনি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ- সিআইডি প্রধানের দায়িত্বে আছেন। ১৬ আগস্ট এক প্রজ্ঞাপনে তাকে সিআইডি এ দায়িত্ব দেয় সরকার। এরপর থেকে টুরিস্ট পুলিশের প্রধানের পদটি শূন্য।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমানকে অতিরিক্ত আইজিপি পদে পদোন্নতি দিয়ে টুরিস্ট পুলিশের প্রধান করা হলো। অবিলম্বে এই আদেশ কার্যকর হবে।

 

২০১৯ সালের ১৬ মে হাবিবুর রহমান ঢাকা রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) হিসেবে দায়িত্ব পান। তার আগে তিনি পুলিশ সদর দপ্তরের ডিআইজি (প্রশাসন) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

কর্মক্ষেত্রে ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে হাবিবুর রহমান তিনবার বাংলাদেশ পুলিশ পদক (বিপিএম) ও দুইবার রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) পেয়েছেন। তাছাড়া সমাজের সুবিধাবঞ্চিত মানুষ, বেদে সম্প্রদায় ও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষকে নিয়ে তার কাজ প্রশংসিত।

পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হিসেবে গুরুদায়িত্ব পালনের পাশাপাশি মানবিক কাজই নয়, হাবিবুর রহমান সম্পাদনা করেছেন আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ কাজ। যৌনপল্লীর শিশুদের মধ্যে শিক্ষার আলো ছড়ানো, একাত্তরে পাক-হানাদারদের বিরুদ্ধে পুলিশের প্রতিরোধ যোদ্ধাদের খুঁজে বের করা, তাদের নিয়ে বই সম্পাদনা-এসব কাজের মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজির দায়িত্ব নেওয়ার পর হাবিবুর রহমান তার আওতাধীন থানাগুলোতে সিসিটিভি বসিয়ে পুলিশি সেবা নিশ্চিত করেছেন। এরই মধ্যে তার এই উদ্যোগ পুলিশে নজির তৈরি করেছে।

১৯৬৭ সালে গোপালগঞ্জের চন্দ্র দিঘলিয়া গ্রামে জন্ম নেওয়া হাবিবুর রহমান ১৭তম বিসিএস পুলিশ ক্যাডারে যোগ দেন সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হিসেবে। বরাবরই চ্যালেঞ্জ নিতে প্রস্তুত এই পুলিশ কর্মকর্তা বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেছেন। পেশাগত সাফল্য তাকে নিয়ে গেছে ঈর্ষণীয় অবস্থানে।

পুলিশসহ সব মহলে একজন মানবিক কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত হাবিবুর রহমান ডিআইজি (প্রশাসন) হিসেবে পুলিশ সদর দপ্তরে অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে কাজ করেছেন। অতিরিক্ত ডিআইজি (প্রশাসন) হিসেবেও তার কাজের প্রশংসা ছিল সব মহলেই। ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা আছে হাবিবুর রহমানের।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) উপ-পুলিশ কমিশনার (সদর দপ্তর) হিসেবে তার সততা, দক্ষতা এখনো সবার মুখে মুখে।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনার প্রতি অবিচল আস্থার কারণে বিএনপি- জামায়াত জোট সরকারের আমলে মেধাবী হাবিবুর রহমানকে দুর্গম ও কম গুরুত্বপূর্ণ পদে পদায়নসহ নানা মানসিক নির্যাতনে রাখা হয়েছিল।

Previous articleপাহাড়ি-বাঙালি সম্প্রীতি উন্নয়নে অবদান রেখেছে সেনাবাহিনী: কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা
Next articleসাকিবের বীরোচিত ৭০ রানের ইনিংসও হার এড়াতে পারলো না বাংলাদেশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।