নীলফামারী প্রতিনিধি: মেয়ে-জামাইয়ের বাড়ি হতে ধারে টাকা নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে নীলফামারীতে অটোরিক্সার চাকায় ওড়না পেচিয়ে আলেমা বেগম (৪৮) নামের এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। নিহত গৃহবধূ পার্শ্ববর্তী পঞ্চগড় জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার সোনাহার এলাকার আইজুল ইসলামে স্ত্রী। সোমবার দুপুর ১২টার দিকে ডোমার-জলঢাকা সড়কের তিনবট নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে ধর্মপাল ইউপি সদস্য আশরাফুল ইসলাম জানান, সোমবার দুপুরে জলঢাকা-ডোমার সড়কের তিনবট এলাকায় চিৎকার শুনে এলাকাবাসী ছুটে যায়। এ সময় একজন মধ্যবয়সী নারীর ওড়না অটো-রিক্সার চাকায় একটি অংশ ও গলায় আনেকটি অংশ পেঁচানো মৃতদেহ দেখতে পায় তারা। তার গলায় অনেকখানি কেটে যাওয়ায় প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছিল।

এ সময় এলাকাবাসী জলঢাকা থানা, মিরগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি ও ডোমার থানায় খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে এবং অটোরিক্সাচালক ও দুই জন যাত্রীকে থানা হেফাজতে নিয়ে যায়।

নিহতের মেয়ে জামাই মো: শাহিন আলম জানান, সোমবার সকাল ১১টার দিকে আমার নিকট হতে ১৪ হাজার টাকা ধার নিয়ে নিজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য আমার বাড়ি হতে বের হয়।

মিরগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ির অফিসার ইনচার্জ মো: হাবিবুর রহমান হাবিব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।