কাগজ প্রতিনিধি: গাজীপুর-৫ আসনে বিএনপির প্রার্থী কারাবন্দি ফজলুল হক মিলনের স্ত্রী শম্পা হকের প্রচারে হামলা চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে আহত হন কালীগঞ্জ থানা মহিলা দলের সভানেত্রী চামেলী হক, পূবাইল থানা যুবদল নেতা সোহেল রানা, পলাশ রানা ও মেহেদী হাসান। তাদের হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

শম্পা হকের অভিযোগ, আজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে মাজুখান বাজারে গণসংযোগে যাওয়ার পথে ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতাকর্মীরা তার গাড়িতে হামলা চালায়। গাড়ির কাচ ভেঙে ফেলে। সঙ্গে থাকা নেতাকর্মীদের ওপরও হামলা চালায় তারা। পুলিশ যুবদল ও ছাত্রদলের দুই নেতাকে আটক করেছে। তারা হলেন-আওলাদ ও মাসুম সরকার।

স্থানীয় বিএনপির নেতাকর্মীদের অভিযোগ, ছাত্রলীগ-যুবলীগের হামলার সময় পুলিশ কাছাকাছি ছিল। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। এ বিষয়ে পূবাইল থানার ওসি নাজমুল হক ভূঁইয়া জানান, এ বিষয়ে আমার কাছে কোনো তথ্য নেই। খোঁজ নিচ্ছি।