নোয়াখালী প্রতিনিধি: বাম জোট নেতৃবৃন্দ বলেছেন, সুবর্ণচরে ধর্ষণের ঘটনায় প্রকৃত আসামীদেরকে এখন পর্যন্ত এজহারভুক্ত করা হচ্ছে না। তারা বলেন, অবিলম্বে প্রকৃত আসামীদেরকে এজহারভুক্ত করে দ্রুত বিচার আইনে শাস্তির নিশ্চিত করতে হবে।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের নেতৃবৃন্দ নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজুবলী ইউনিয়নের ধর্ষণ হওয়া নারীকে দেখতে যান ও তার পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করেন। পরিবারের সাথে সাক্ষাৎ শেষে নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলের গ্রাম পরিদর্শনে যান এবং স্থানীয় জনগণের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

এ সময় বাম গণতান্ত্রিক জোটের শীর্ষ নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- লক্ষ্মী চক্রবর্তী, শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, বজলুর রশীদ ফিরোজ, রুহিন হোসেন প্রিন্স, আব্দুস সাত্তার, আকবর খান, মহিউদ্দিন চৌধুরী লিটন, স্থানীয় জোট নেতৃবৃন্দ, প্রগতিশীল ব্যক্তি, আইনজীবী, শিক্ষক ও সাধারণ জনতা।

পরিদর্শন শেষে নেতৃবৃন্দ ক্ষোভ প্রকাশ করে নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রকৃত আসামিরা এখনও গ্রেপ্তার হয়নি। প্রকৃত আসামিদেরকে এখন পর্যন্ত এজহারভুক্ত করা হচ্ছে না। তারা আরো বলেন, সুবর্ণচরে এই ধর্ষণের ঘটনা নির্বাচনের প্রতিহিংসার কারণেই ঘটেছে এবং এই ঘটনার সাথে সরকার দলীয় সমর্থকরা যুক্ত তা দেশবাসীর কাছে পরিষ্কার। নিগৃহীত নারী ও তার পরিবারের যানমালের নিরাপত্তার সাথে সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ জনগণকে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়ে বলেন, অভিযুক্তরা সরকার দলীয় সমর্থক হওয়ায় আইনের কোনো মারপ্যাঁচে যেন পার না পায় সেই বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।

এদিকে সিপিবি কেন্দ্রীয় নারী সেল-এর উদ্যোগে শনিবার বিকাল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা ও সুবর্ণচরে গণধর্ষণের সাথে জড়িত সকলের দৃষ্টন্তামূলক শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে।