কাগজ প্রতিবেদক: কামরাঙ্গীরচর থেকে শরিয়তপুর যাওয়ার উদ্দেশে সদরঘাটে আসার পথে সুরভী-৭ লঞ্চের ধাক্কায় ডিঙি নৌকা থেকে ছিটকে পড়ে একই পরিবারের ছয়জন নিখোঁজ হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। নৌকা থেকে পড়ে যাওয়া শাহজালাল নামে একজনকে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও নিখোঁজ রয়েছেন তার পরিবারের অপর ছয়জন।
লঞ্চটির পাখার আঘাতে দুই পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে শাহজালালের। নৌ পুলিশের একটি টহল টিম শাহজালালকে উদ্ধার করে মিডফোর্ড হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসার পর পঙ্গু হাসপাতালে পাঠায়। নিখোঁজদের উদ্ধারে নৌ পুলিশ, বিআইডব্লিউটিএ এবং ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছেন।
বিষয়টি নিশ্চিত করে সদরঘাট নৌ পুলিশের ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, নিখোঁজরা সবাই একই পরিবারের। তারা হলেন- শাহজালালের স্ত্রী শাহিদা, তাদের মেয়ে মিম (৮) ও মাহি (৬), ভাগ্নি জামসিদা (২২), ভাগ্নি জামাই দেলওয়ার (২৭) ও তাদের তিন মাসের বাচ্চা।

ঘটনার বিবরণ দিয়ে ওসি আব্দুর রাজ্জাক বলেন, রাত ১০টার দিকে কামরাঙ্গীরচর থেকে শাহজালাল পরিবারের সাত সদস্য নিয়ে ডিঙি নৌকায় সদরঘাটে আসছিলেন। ঘাটে আসার আগেই সুরভী-৭ পজিশন নিতে ঘুরছিল। পেছন থেকে সুরভী-৭ এর ধাক্কায় ডুবে যায় ডিঙি নৌকাটি।
সাঁতরে তীরে শাহজালাল ভিড়তে পারলেও বাকিরা নিখোঁজ হয়ে যায়। খবর পেয়ে নৌ পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা কাজ করছেন। সর্বশেষ রাত পৌনে ১টা পর্যন্ত নিখোঁজদের কারও খোঁজ মেলেনি।