তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের বিপক্ষে প্রচার-প্রচারণায় অংশ নেয়া নেতাদের বহিষ্কার করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীসহ দলীয় বেশ কিছু নেতাকে নৌকার পক্ষে আনতে না পেরে পদ থেকে অব্যাহতি, বহিষ্কার ও কমিটি বিলুপ্ত করা হয়েছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করায় তাদের নেতাকর্মীদের ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি দেয়ার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে। তবে প্রভাবশালী স্বতন্ত্র প্রার্থী বলছেন, তারাও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত। দলের মনোনীত প্রার্থীদের তেমন জনসমর্থন নেই। নির্বাচনে নিরপেক্ষ ভোট হলে তারা বিপুল ভোটে হারবে। নিজেদের পক্ষে নেতাকর্মীদের আনতে না পেরে নির্বাচন করার কারণে অনেককে বহিষ্কার করা হচ্ছে। দলীয় সূত্রে জানা যায়, দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ ও নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে গিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী ও বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদারের (মোটর সাইকেল) পক্ষে প্রচার-প্রচারণায় অংশ নেয়ায় ১৮ মার্চ ৬ নেতা ও ১৯ মার্চ আওয়ামী লীগের তিন নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ ও সাধারণ স¤পাদক ইসমাইল খোকন তাদের বহিষ্কার করেন। মামুনুর রশিদকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। বহিষ্কৃতরা হলেন উপজেলার চর মোহনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের প্রচার স¤পাদক হুমায়ুন কবির, সদস্য আবদুল হক, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ স¤পাদক ফারুক আহমেদ পঞ্চায়েত, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি বশির উল্যা, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের সভাপতি মোস্তফা কামাল বাহাদুর ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ স¤পাদক দেলোয়ার হোসেন দেলু এবং দক্ষিন চরবংশী ইউনিয়ন আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু ছালেহ মিন্টু ফরাজী, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির মোল্লা ও ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন। দলীয় নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ১৫ মার্চ রায়পুরে তাজমহল সিনেমা হলের সামনে উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মতবিনিময় সভা করা হয়। এতে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য কাজী শহীদ ইসলাম, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক স¤পাদক হারুনুর রশিদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক নূর উদ্দিন চৌধুরী নয়নসহ সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ওই সভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদারের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। তিনি উপজেলার উত্তর চরবংশী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি ছিলেন। সেখানে ওসমান খানকে আহ্বায়ক, আলাউদ্দিন হাওলাদার, রুহুল আমিন খলিফা, খালেদ হোসেন দেওয়ান ও আবদুল লতিফ দেওয়ানকে যুগ্ম আহ্বায়ক করে কমিটি ঘোষণা করা হয়। রায়পুরের চেয়ারম্যান আলতাফ হোসেন হাওলাদার বলেন, আমার নেতাকর্মীদের আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও তার অনুসারী হুমকি দিচ্ছে। এসব করে লাভ হবে না। জনগণ ব্যালটের মাধ্যমে জবাব দেবে। আমি সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম ফারুক পিংকু বলেন, যারা নৌকার বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচন করছে, তাদেরকে সতর্ক করা হয়েছিল। গঠণতন্ত্র অনুযায়ী এখন তাদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। দলীয় নেতাদের ভয়ভীতি ও হুমকি দেওয়ার অভিযোগ সঠিক নয়।