সাঁথিয়ায় ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষিত

আব্দুদ দাইন: পাবনার সাঁথিয়ায় ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষিত হয়েছে। সাঁথিয়া থানায় দেয়া লিখিত অভিযোগে জানা যায়, সাঁথিয়া উপজেলার নন্দনপুর কেজিএস আয়শা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রীর সাথে উপজেলার তেতুলিয়া গ্রামের মৃত শহীদ আলীর ছেলে মনোয়ার হোসেন মুক্তার(২৩) প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। মনোয়া পাবনা পলিটেশকি ইস্টিটিউেেটর ছাত্র। প্রেমের সম্পর্কের সুযোগে মেেনায়ার গত ২৯ সেক্টেম্বর দিনগত রাতে ওই ছাত্রীকে গোপনে তার বাড়িতে ডেকে আনে। এক পর্যায়ে ছাত্রীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষিতাকে মিথ্যা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়ি রেখে আসে। এদিকে বৃহস্পতিবার মনোয়ার অন্য আর একটি মেয়েকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত করে। এখবর শুনে ওই ছাত্রী ঐদিন মনোয়ারের বাড়িতে উঠে পড়ে। মনোয়ারের পরিবার থেকে থানায় অভিযোগ করলে থানা পুলিশ ওই ছাত্রীকে থানায় নিয়ে আসে। এব্যাপারে ছাত্রীর মা নাজমা খাতুন বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্ত কর্র্মকর্র্তা সাঁথিয়া থানার এস,আই আবুল কালাম জানান, ছাত্রীটি থানা হেফাজতে আছে(শুক্রবার)। শনিবার ধর্ষিতার মেডিক্যাল পরীক্ষা করা হবে। ধর্ষক মনোয়ার পলাতক রয়েছে।