গুলি করে হত্যার ৫ দিন পর বাংলাদেশির লাশ দিলো বিএসএফ

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: পাঁচদিন পর বাংলাদেশি যুবকের লাশ ফেরত দিয়েছে ভারতীয় সীমান্ত রক্ষাকারী বাহিনী (বিএসএফ)। বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে ওই মরদেহটি হস্তান্তর করে ভারতের খোচাবাড়ী ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা।

এর আগে সকালে বিজিবি ও বিএসএফের পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার কান্দাল সীমান্তে ২০ অক্টোবর সন্ধ্যায় অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশের সময় বিএসএফের গুলিতে শ্রীকান্ত রায় (৩০) নিহত হন। তিনি হরিপুর উপজেলার আমগাঁও কালচা গ্রামের খেলুরামের ছেলে।

শ্রীকান্তের বাবা খেলুরাম বলেন, সোমবার থেকে মরদেহ ফেরত দেয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়। আমরা সবাই আশা ছেড়ে দিয়েছিলাম। মনে করেছিলাম, মরদেহ ফেরত দেবে না। অবশেষে ছেলের মরদেহ পেলাম।

কান্দাল ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা জানান, সোমবার থেকে মরদেহ ফেরত পেতে বিএসএফ সদস্যদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে চলেছি। সকালে আমাদের পত্রে সাড়া দিলে উভয় দেশের পতাকা বৈঠক হয়। পরে মরদেহ ফেরত দেয় তারা।

মরদেহ ফেরতের সময় হরিপুর থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আব্দুস সবুর, কান্দাল ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা, নিহত যুবকের পরিবারের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

রোববার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ভারতের পাঞ্জাবে ইটভাটায় কাজ করার উদ্দেশ্যে কান্দাল সীমান্ত দিয়ে ভারতের খোচাবাড়ী ক্যাম্পের কাছে পৌঁছালে শ্রীকান্ত রায়কে গুলি করে বিএসএফ। এতে শ্রীকান্ত নিহত হয়। সারারাত সীমান্তে পড়েছিল নিহত শীকান্তের মরদেহ। মঙ্গলবার সকালে খোচাবাড়ী সীমান্তের বিএসএফ সদস্যরা মরদেহ তুলে নিয়ে যায়।