আক্কেলপুরে ছাত্রলীগ নেতাকে রড দিয়ে পেটানোর অভিযোগ

আতিউর রাব্বী তিয়াস: জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে ইমরান হোসেন রাব্বি (২৬) নামে এক ছাত্রলীগ নেতাকে মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। গত সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে পৌরসভার হাস্তাবসন্তপুর ঘোষপাড়া গ্রামের এ ঘটনা ঘটে। ইমরান হোসেন রাব্বি ওই গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে। সে উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ন আহ্বায়ক। জানা গেছে, পূর্বে থেকে ওই ছাত্রলীগ নেতা ইমরানের সাথে তার চাচা আব্দুল হাকিমের পারিবারিক বিরোধ চলে আসছিল। গত সোমবার রাতে ইমরান হোসেন তার চাচা আব্দুল হাকিমের বাড়ির সামনে গেলে তাকে রড দিয়ে পেটায় আব্দুল হাকিম। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই রাতেই তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। ছাত্রলীগ নেতা ইমরান হোসেন অভিযোগ করে বলেন, ওই রাতে আব্দুল হাকিমের ছেলে ইমাম হোসেন জজ আমাকে ফোন করে তাদের বাড়ির সামনে যেতে বলে, আমি তাদের বাড়ির সামনে যেতেই আব্দুল হাকিম ও তার ছেলে ইমম হোসেন আমাকে রড দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করতে থাকে। এ সময় স্থানীয়রা এগিয়ে না আসলে আমি প্রাণে মারা যাই। এ ঘটনায় আমি সুষ্ঠু বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছি। আব্দুল হাকিম বলেন, পারিবারিক বিরোধের জেরে মদ্যপ অবস্থায় ওই রাতে ইমরান হোসেন আমাদের বাড়ির সামনে এসে আমাদেরকে অকথ্যভাষায় গালিগালাজ করে। তখন তাকে আমি একটু শাসন করেছি। সে-ও আমার ছেলেকে মেরেছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার আসাফুদৌলা বলেন, ইমরান হোসের গায়ে কোনো ভারী বস্তু দিয়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। বর্তমানে সে চিকিৎসাধীন। উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক খাদেমুল ইসলাম বলেন, আমার সংগঠনের নেতাকে অন্যায়ভাবে রড দিয়ে পেটানোর ঘটনায় আমি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

আক্কেলপুর থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি) আবু ওবায়েদ বলেন, একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। এটি কোনো রাজনৈতিক বিষয় নয়, তাদের পারিবারিক বিষয়, তাকে চরথাপ্পড়, কিলঘুসি মারা হয়েছে। বিষয়টি দেখা হচ্ছে।