সিলেটে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ছাত্রলীগকর্মীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সিলেট নগরের টিলাগড়ে অভ্যন্তরীণ বিরোধে অভিষেক দে দ্বীপ (১৯) নামে এক ছাত্রলীগকর্মী খুন হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত দ্বীপ গ্রিনহিল স্টেট কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। এ ঘটনায় জড়িত অভিযোগে সৈকত রায় সমুদ্র নামের এক ছাত্রলীগকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
পূজার টাকা ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে বিবাদেই নিজ গ্রুপের ছাত্রলীগকর্মীদের হামলায় দ্বীপ খুন হন বলে একাধিক সূত্রে জানা গেছে। নিহত দ্বীপ ও হামলাকারী সমুদ্র দুজনই আওয়ামী লীগ নেতা রণজিৎ সরকার গ্রুপের অনুসারী।
জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ছাত্রলীগকর্মী সৈকত রায় সমুদ্রের নেতৃত্বে একদল যুবক দ্বীপের ওপর হামলা চালায়। দ্বীপকে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় তারা। আশঙ্কাজনক অবস্থায় সিলেট এমএজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক দ্বীপকে মৃত ঘোষণা করেন।
সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই ওমর ফারুক অভিষেক দ্বীপের মৃত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, হাসপাতালে আনার পর চিকিৎসকরা দ্বীপকে মৃত ঘোষণা করেন।
এদিকে হামলায় নেতৃত্বদানকারী ছাত্রলীগকর্মী সৈকত রায় সমুদ্র সিলেট সরকারি কলেজের ছাত্র। তাকে পুলিশি পাহারায় ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। হামলার সময় সৈকতও আহত হয়েছিলেন।
সিলেট মহানগর পুলিশের শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাইয়ুম জানান, পূজার টাকা সংক্রান্ত বিরোধ থেকে রাত সাড়ে ৯টার দিকে টিলাগড়ে অভিষেক দে দ্বীপ নামের এক কলেজছাত্রকে ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত অবস্থায় ফেলে যায় একদল যুবক। পরে সিলেট এমএজি মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দ্বীপকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় সৈকত রায় সমুদ্র নামের একজনকে আটক করা হয়েছে।
এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার ( ডিসি দক্ষিণ) সুহেল রেজা। তিনি বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। পুরো বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে এবং হামলাকারীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতারে পুলিশের একাধিক দল মাঠে কাজ করছে।