যুবলীগ নেতার রগ কাটা মামলায় ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাঙামাটিতে যুবলীগ নেতা নাসির হত্যাচেষ্টা মামলার এজাহারভুক্ত আসামি জেলা ছাত্রলীগের সদস্য মীর শাকিলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে রাঙামাটি শহরের তবলছড়ি বাজার থেকে তাকে গ্রেফতার করার কথা নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারি কর্মকর্তা ও কোতয়ালী থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক মো. জিয়াউল হক।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, গ্রেফতারকৃত মীর শাকিল ২৭ জানুয়ারি বহিষ্কৃত যুবলীগের ৮নং ওয়ার্ড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. নাসিরকে ‘হত্যাচেষ্টা’ মামলার এজাহারভুক্ত ৫নং আসামি এবং এরপরে ৬ ফেব্রুয়ারি রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের মারধরের ঘটনায় আহত মেহেদী হাসানের থানায় জমা দেয়া অভিযোগপত্রে তার নাম আছে।

গ্রেফতারকৃত মীর শাকিলকে বিকেলেই রাঙামাটি জেলা জজ আদালতে হাজির করা হলে তাকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। তিনি জানিয়েছেন, অন্য আসামিদের ধরার জন্যেও আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

রাঙামাটি জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন টিপু জানিয়েছেন, মীর শাকিল জেলা ছাত্রলীগের সদস্য এটা ঠিক। তবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি-সম্পাদকসহ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা ঢাকায় আছেন। তারা ফিরে এলে মীর শাকিলের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, গত ২৭ জানুয়ারি রাঙামাটি শহরের প্রত্যাশা ক্লাবে ডেকে নিয়ে যুবলীগ নেতা নাসিরকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে কয়েকজন ছাত্রলীগ ও যুবলীগ কর্মী। আঘাতে পায়ের রগ কেটে যাওয়া নাসিরকে গুরুতর আহত অবস্থায় হামলাকারিরাই রাঙামাটি সদর হাসপাতালের সামনে ফেলে যায়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চিকিৎসকরা তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রামে পাঠান। সেখানেই একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন নাসির। হামলার ঘটনার ৩ দিন পর নানান টালবাহানা শেষে ৩০ জানুয়ারি মামলা গ্রহণ করে পুলিশ। এই মামলায় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার সুজনসহ ৮ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়।