ঝিনাইদহে অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্বামী গ্রেফতার

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ঝিনাইদহ শহরের হাটখোলা এলাকায় স্বামীর দেয়া আগুনে দগ্ধ হয়ে অন্তঃসত্ত্বা মুন্নি আক্তার পিংকির (২৫) গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার দিবাগত রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় স্বামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। নিহত মুন্নি আক্তার পিংকি শহরে হাটখোলা এলাকার মুন্না হোসেনের মেয়ে।

জানাযায়, গত ১৬ ফেব্রুয়ারি রাতে শহরের হাটখোলা এলাকায় মুন্নি আক্তার পিংকির বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহতের স্বজনরা জানায়, গত ৪ মাস আগে মুন্নি আক্তার পিংকির সঙ্গে হাটখোলা এলাকার আব্দুর সাত্তারের ছেলে সোহরাব হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই যৌতুক সহ নানা কারনে নির্যাতন করে আসছিল। তারই ধারাবাহিকতায় গত ১৬ ফেব্রুয়ারি বিকেলে পিংকির বাড়িতে এসে সোহরাব তার কাছে টাকা দাবি করে। কিন্তু পিংকি টাকা দিতে অস্বীকার করলে তার স্বামী সোহরাব তাকে মারপিট করে এবং তার শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়, এতে সে দগ্ধ হয়।

পিংকির শরীরে আগুন ধরিয়ে দিলে সে বাঁচার জন্য স্বামী সোহরাবকে জড়িয়ে ধরে এতে তার হাত-পা সামন্য পুড়ে যায়। পরে পরিবারের লোকজন পিংকিকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তার শরীরের অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিট হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। শনিবার রাতে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত পিংকি ৩ মাসের অন্তঃস্বত্ত্বা ছিলো বলেও স্বজনরা জানান।

ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার মো. হাসানুজ্জামান জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ১৬ ফেব্রুয়ারি রাতে নিহতের মা কাজল বেগম বাদী হয়ে সদর থানায় মামলা করে। এ ঘটনায় পুলিশ তার নিহতের স্বামী সোহরাবকে গ্রেফতার করেছে।

Previous articleআপত্তিকর ও অনৈতিক অশ্লীল ভিডিওতে ঠাঁসা পাপিয়ার মোবাইল ফোন
Next articleকেশবপুরে এক রাতে ৭ দোকানে চুরি
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।