কুমিল্লায় নমুনা সংগ্রহের দুই ঘণ্টা পর কলেজছাত্রীর মৃত্যু

ওসমান গনি: করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে চান্দিনায় এক কলেজ ছাত্রী(১৮) মারা গেছে। গতকাল শনিবার বিকেলে উপজেলার মাইজখার ইউনিয়নের ভোমরকান্দি গ্রামের নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু ঘটে। রাতেই সতর্কতার সাথে তার লাশ দাফন করা হয়েছে।
চাচা মাইজখার ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার সফিকুর রহমান জানান, কলেজছাত্রী দুই-তিন সপ্তাহ ধরে জ্বর ও কাশিতে ভূগছিলেন। বাড়িতে চিকিৎসায় শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হলে গত সপ্তাহে রামমোহন বাজারে ডাক্তার দেখান। তারপরও জ্বর কমেনি, শুরু হয় শ্বাসকষ্ট।

সূত্র জানায়, বরুড়া উপজেলার খোসবাস কলেজের একাদশ শ্রেণীর এ ছাত্রীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে শুক্রবার যোগাযোগ করা হয় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার সাথে। তিনি মোবাইল ফোনেই পরামর্শ দেন একটি ইঞ্জেকশন দিতে। শনিবার সকালে তিনি ছাত্রীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন।

এদিকে স্বাস্থ্য কর্মকর্তার পরামর্শে ছাত্রীকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে ভর্তি রাখা হয়নি। শুধু তার নমুনা সংগ্রহ করে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। বাড়িতে পৌছার একঘন্টার মধ্যেই মারা যান কলেজছাত্রী।
রাতে সতর্কতার সাথে তিনজন লোক পিপিই পরে ছাত্রীর দাফন কাজ সম্পন্ন করেন। স্থানীয় মসজিদের ঈমামসহ পরিবারের ৩/৪ জন অংশ নেন জানাজায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আহসানুল হক বলেন, ‘মারা যাওয়া ছাত্রীর নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।’