টাকা দিয়ে ধর্ষণের মীমাংসা, ক্ষোভে কিশোরীর আত্মহত্যা

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চাঁপাইনবাবগঞ্জে সালিশি বৈঠকে টাকা দিয়ে ধর্ষণের ঘটনার মীমাংসা করায় ক্ষোভে আত্মহত্যা করেছে এক কিশোরী।
অভিযোগ উঠেছে, সঠিক বিচার না পেয়েই মেয়েটি আত্মহত্যা করেছে। এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের কঠোর শাস্তি চেয়েছে তার পরিবার। এরই মধ্যে প্রধান আসামিসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত ২০ সেপ্টেম্বর, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দ্বারিয়াপুর মহাজনপাড়া মহল্লার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী আসিফা খাতুনের ওপর পাশবিক নির্যাতন করে চাচাতো ভাই বাসির। দুইদিন পর বিষয়টি জানাজানি হলে সালিশি বৈঠকের মাধ্যমে ৭২ হাজার টাকায় ঘটনাটি মীমাংসা করেন স্থানীয় কাউন্সিলর। বৈঠকেই ওই কিশোরী সাফ জানিয়ে দেয় টাকা নয়, ঘটনার উপযুক্ত বিচার চায় সে। জোর করে সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়ায় ক্ষোভে গত শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিষপানে আত্মহত্যা করে কিশোরী আসিফা।

টাকা দিয়ে ধর্ষণের ঘটনা মীমাংসার কথা অস্বীকার করে স্থানীয় ৪ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মতিউর রহমান মটন মিয়া বলেন, পারিবারিকভাবে বিষয়টি মীমাংসা করা হয়েছে।

এদিকে, ঘটনাটি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করার কথা জানালেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কল) ইকবাল হোছাইন।

সন্তান হত্যার অভিযোগ এনে শুক্রবার রাতে বাসিরসহ পাঁচজনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেন আসিফার বাবা সাদেকুল। এরই মধ্যে মূল আসামিসহ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।