রংপুরে পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে শ্রমিক হত্যার অভিযোগ

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রংপুরে পায়ুপথে বাতাস ঢুকিয়ে দেয়ায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে ষাটোর্ধ্ব শ্রমিক মারা গেছেন। শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) সকালে রংপুর মেডিকেলে কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় মাহিগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা হয়েছে।

এদিকে মহিরের মৃত্যুর খবরে নগরীর দেওয়ানটুলিতে তার পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ, মহির উদ্দিনের মৃত্যুর জন্য কারখানা কর্তৃপক্ষ দায়ী। তারা অভিযুক্তদের শাস্তির দাবি জানান।

গত মঙ্গলবার বিকেলে নগরীর মাহিগঞ্জের দেওয়ানটুলি এলাকায় জমজম ফিড মিলের কর্মচারি মহিরউদ্দীন ও রশিদুল ইসলাম মেশিন পরিষ্কার করছিলেন। এ সময় মহিরের শরীর পরিষ্কারের নামে হাওয়া মেশিন দিয়ে রশিদুল মহিরের পায়ুপথে হাওয়া দিলে তার পেট ফুলে যায়। ঘটনাস্থলেই জ্ঞান হারালে তাকে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি করা হয়। এলাকাবাসীর দাবি অদক্ষ শ্রমিক কর্মচারীদের দ্বারা ঝুঁকিপূর্ণ মেশিন পরিচালনার কারণেই মর্মান্তিক এই ঘটনা। তবে এমন অভিযোগ মানতে নারাজ কারখানার মালিক।

কারখানা মালিক আবদুল মতিন বলেন, পানি দিয়ে ভালোভাবে পরিষ্কার হয় না। সে জন্য বাতাস দিয়ে পরিষ্কার করা হয়। কিন্তু বাতাস দিয়ে পরিষ্কার করার জন্য নিষেধ করা হয়েছে।

মহিরের ছেলে জানান, আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে। আমি এ ঘটনার জন্য সুষ্ঠু বিচার চাই। এ হত্যার সঙ্গে তাদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসা হোক।

রংপুর মহানগর পুলিশের মাহিগঞ্জ থানা পরিদর্শক শেখ রোকনুজ্জামান বলেন, এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) মাহিগঞ্জ থানায় পরিবারের পক্ষ থেকে রশিদুল ও অজ্ঞাত আরও দুজনসহ মোট তিনজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়। আসামিদের ধরতে অভিযান চলছে।

মেশিন পরিষ্কারের হাওয়া মেশিন দিয়ে শ্রমিকরা দীর্ঘদিন ধরে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার সময় শরীর পরিষ্কার করলেও নির্বিকার ছিল জমজম ফিডমিল কর্তৃপক্ষ।