নড়াইলে ঘর থেকে কলেজ শিক্ষকের মরদেহ উদ্ধার

বাংলাদেশ প্রতিবেদক: নড়াইলে অরুণ কুমার রায় নামে এক অবসরপ্রাপ্ত কলেজ শিক্ষকের গলাকাটা মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) রাত নয়টার দিকে পুলিশ খবর পেয়ে সদর উপজেলার বেনাহাটি গ্রামের নিজ বাড়ির শোবার ঘর থেকে অরুণ রায়ের মৃতদেহটি উদ্ধার করে।

পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা জানায়, অরুণ রায়ের স্ত্রী নিভা রানী পাঠক মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর খুলনার উপপরিচালক, ছেলে প্রকৌশলী এবং মেয়ে ডাক্তার। তারা নিজ নিজ কর্মস্থলে থাকার সুবাদে অবসরে যাবার পর থেকে বেনাহাটি গ্রামের বাড়িতে অরুণ রায় একাই বসবাস করতেন। বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) সন্ধ্যার পরে সর্বশেষ স্ত্রীর সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা হয় তার। এরপর অনেকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগে ব্যর্থ হয়ে স্ত্রী নিভা রানী ছেলেকে নিয়ে শুক্রবার রাত আটটার দিকে বেনাহাটি আসেন। বাড়ি এসে তারা অনেক ডাকাডাকি করে অরুণ রায়ের সাড়াশব্দ না পেয়ে, এক পর্যায়ে ছেলে ইন্দ্রোজিৎ মঈ বেয়ে বাড়ির দোতলায় উঠে শোবার ঘরের মেঝেতে বাবা অরুণ রায়ের রক্তাক্ত মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। তার স্বজন, এলাকাবাসী কেউই সহজসরল এ মানুষটির এভাবে চলে যাওয়া কোনভাবেই মেতে নিতে পারছেন না।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ ইমরান জানান, বৃহস্পতিবার রাত ৮টার পরে রাতের কোন এক সময় অরুণ রায় অজ্ঞাত খুনিদের পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডে শিকার বলে ধারনা করা হচ্ছে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন জনকে হেফাজতে নেয় হয়েছে।