তাবারক হোসেন আজাদ: লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জে মাদ্রাসায় পড়ুয়া মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় তার বাবা ও মেয়েকে পেটালো বখাটেরা। এ ঘটনায় অভিযুক্ত দুই বখাটে যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১৭ ডিসেম্বর) বিকালে তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে সোপর্দ করা হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের বসুদুহিতা গ্রামের ইব্রাহীম খোকনের ছেলে মনির হোসেন ও তার ছোট ভাই বেলাল হোসেন। এর আগে বুধবার দুপুরে ওই ইউনিয়নের আন্ডারঘর নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষার্থী শারমিন আক্তার বটতলী আয়েশা (রা.) মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী ও বসুদুহিতা গ্রামের শাহআলমের মেয়ে। এ ঘটনায় ছয়জনকে আসামি করে চন্দ্রগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছেন ওই ছাত্রীর বড় ভাই আব্দুর রহমান।

স্থানীয়রা ও ওই ছাত্রীর বড় ভাই আব্দুর রহমান জানায়, শারমিন মাদ্রাসায় যাওয়া-আসার পথে প্রায়ই উত্ত্যক্ত করে আসছিল বখাটে যুবক বেলালসহ অন্যান্যরা। ঘটনার দিন আন্ডারঘর নামকস্থানে নিজেদের চা দোকানে বাবার জন্য নাস্তা নিয়ে আসছিল শারমিন। এসময় বখাটে মনির ও বেলাল তাকে পথে একা পেয়ে বিভিন্ন ধরণের অশালীন কথা-বার্তা বলছিল। এতে শারমিন প্রতিবাদ করলে বখাটেরা তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। একপর্যায়ে ওই ছাত্রীর বাবা শাহআলম এগিয়ে প্রতিবাদ করলে তাকে ও তার মেয়েকে বেদম প্রহার করে বখাটেরা। পরে স্থানীয়রা তাদের গুরুত্বর আহতাবস্থায় উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এ ঘটনায় ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর বড় ভাই আব্দুর রহমান বাদী হয়ে মনির, বেলাল, জাকির ও ইব্রাহীম খোকনসহ ছয়জনকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করে। এদিকে ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুইজনকে আটক করে।

চন্দ্রগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) জসীম উদ্দীন জানান, বাবা ও মেয়েকে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় অভিযান চালিয়ে দুই বখাটে যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় অন্য আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশী অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান তিনি।