তাবারক হোসেন আজাদ: ‘সব সমস্যার সমাধান এটাই মুক্তি’ নিজের ফেসবুকে এমন ষ্ট্যাটাস লেখার ৪ ঘন্টা পর আত্মহত্যা করেছে রবিন পাল নামে এক ছাত্র।

শনিবার (১৬জানুয়ারী) রাতে লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জে এ মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। মৃত রবিন চন্দ্রগঞ্জ বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী বাবুল পালের ছোট ছেলে। সে নোয়াখালীর চৌমুহনী সরকারী এস এ কলেজের অনার্স ২য় বর্ষের মেধাবী ছাত্র ও বাবুল পালের বড় ছেলে প্রবাসী।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানায়, গত ৫/৬ দিন আগে রবিন ঢাকা যায়। ঘটনার দিন (১৬জানুয়ারী) সকাল ১১টার দিকে রবিন ঢাকা থেকে আসে। দুুপুরে বাবা-মায়ের সাথে খাবার খায়। খাবার খেয়ে নিজের রুমে চলে যায় রবিন। যাওয়ার আগে তার মাকে বলে, ‘সে ঘুমাবে। হয়ত এই ঘুমই তার শেষ ঘুম।’

সন্ধ্যায় যখন তার মা তাকে উঠার জন্য ডাকে। কোন সাড়া শব্দ না পেয়ে স্থানীয় কয়েক জনকে নিয়ে দরজো ভেঙ্গে দেখেন রবিন ফ্যানের সাথে ঝুলে আছে। একটি ছাপার লুঙ্গি দিয়ে গলায় ফাঁস দেয় রবিন। পরে স্থানীয়রা জীবিত আছে মনে করে স্থানীয় ন্যাশনাল হসপিটালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে।

তবে রবিনের একান্ত বন্ধুরা জানায়, ঢাকায় একটি মেয়ের সাথে সম্পর্ক ছিল রবিনের। তবে তার পরিবার এ বিষয়ে কিছু জানেনা বলে জানিয়েছে।

চন্দ্রগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন জানান, মৃতের অভিভাবকের কোন অভিযোগ না থাকায় স্থানীয় চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে মৃতের শেষ কৃত্যের সিদ্ধান্ত করা হয়।