বাংলাদেশ প্রতিবেদক: সুন্দবনের রায়মঙ্গল নদীতে রফিকুল ইসলাম নামে এক জেলের জালে ধরা পড়েছে ১২৬টি লাউভোলা মাছ। একেকটি মাছের ওজন ৭ থেকে ২০ কেজি পর্যন্ত। ৫৯০ টাকা কেজি দরে মাছগুলো বিক্রি করে রফিকুল ইসলাম পেয়েছেন পাঁচ লাখ ৪০ হাজার টাকা। এতেই ভাগ্য খুলেছে তার। মাছ বিক্রি করে একসাথে এত টাকা পেয়ে রফিকুল ইসলামের পরিবারে বইছে আনন্দের জোয়ার।

সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার রমজাননগর ইউনিয়নের টেংরাখালি গ্রামের জেলে রফিকুল ইসলাম জানান, তিনি সুন্দরবন সংলগ্ন রায়মঙ্গল নদীতে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করেন।

বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) দুপুরের দিকে নদীতে জোয়ার আসে। সেই জোয়ারে তিনি জাল পাতলে ধরা পড়ে এক ঝাঁক লাউভোলা মাছ। ১২৬টি মাছের ওজন হয়েছে প্রায় এক হাজার ৫১ কেজি।

শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) তিনি ৫ লাখ ৪০ হাজার টাকায় একই এলাকার মাছ ব্যবসায়ী নূর হোসেন গাজীর কাছে মাছগুলো বিক্রি করেছেন। গাজী মাছগুলো কিনে শ্যামনগর বংশীপুর সোনার মোড়ের মদিনা ফিসের সত্ত্বাধিকারী হারুনুর রশিদের মৎস্যসেটে ৬ লাখ ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করেন।

ব্যবসায়ী হারুনুর রশিদ জানান, সামুদ্রিক মাছ হিসেবে ভোলামাছ খেতে বেশ সুস্বাদু। স্বাদের পাশাপাশি এই মাছের চাহিদা ও দাম চড়া হওয়ার মূল কারণ হলো এ মাছের ফুলকা ভারতসহ বিভিন্ন দেশে রপ্তানি হয়। গ্রেড অনুযায়ী প্রতি কেজি ফুলকার মূল্য ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা। ভোলা মাছের ফুলকা দিয়ে প্রসাধনী ও মূল্যবান ওষুধ তৈরি হয় বলে জানান তিনি।

Previous articleঅটোপাসের দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন
Next articleকক্সবাজারে বেলুন ফোলানোর সিলিন্ডার বিস্ফোরণে নিহত ৩
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।