স্বপন কুমার কুন্ডু: পাবনা জেলায় ঈশ্বরদীতে সর্বাধিক করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত ১৫ দিনে ঈশ্বরদীতে ২১৯ জন করোনা সনাক্ত হয়েছেন। ইতোমধ্যে এক নারীসহ করোনা আক্রান্ত ৪ জনের মৃত্যুর খবর জানা গেছে। আক্রান্ত রোগী বর্তমানে আইসোলেশনে রয়েছেন বলে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আসমা খান জানিয়েছেন।

পাবনা জেলা সিলিভ সার্জন ডা: আব্দুল মোমেন জানান, সারা দেশের মতো জেলায়ও করোনা রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে জেলার মধ্যে ঈশ্বরদীতে আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশী বলে জানান তিনি।

ঈশ্বরদী হাসপাতাল থেকে প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, গত ১৫ দিনে ঈশ্বরদী হাসপাতালের মাধ্যমে করোনা পরীক্ষায় ১৭ জনের পজিটিভ রিপোর্ট এসেছে। এছাড়া রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র এলাকায় বেসরকারীভবে নমুনা পরীক্ষায় ২০২ জনের করোনা সনাক্ত হয়েছে। ওই এলাকায় নমুনা পরীক্ষার জন্য ভাসমান বেসরকারি ৬টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে। এদের মধ্যে ফেমাস স্পেশালাইজড এবং বিএমএফআর থেকেই ২০২ জনের করোনা সনাক্তের রিপোর্ট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে রয়েছে।
এদিকে গত কয়েকদিনে ঈশ্বরদীতে এক নারীসহ ৪ জনের করোনায় মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। করোনায় আরো মৃত্যুর ঘটনা ঘটলেও প্রকাশ করা হচ্ছে না বলে সংশ্লিষ্ঠরা জানিয়েছেন।
রূপপুর পারমানবিক প্রকল্পের কর্মরতদের জন্য দ্রুত করোনা পরীক্ষার জন্য এখন বেসরকারিভাবে ৬টি ভ্রাম্যমান ল্যাব কাজ করছে। এদের রিপোর্ট ১২ ঘন্টার মধ্যেই পাওযা যাচ্ছে। কিন্তু সাধারণ মানুষের জন্য সরকারিভাবে হাসপাতলে করোনা পরীক্ষার হার খুবই নগণ্য। কারণ হাসপাতালে নমুনা দিলে সিরাজগঞ্জ থেকে রিপোর্ট পেতে সময় লাগে ৮-১০ দিন। তবে এখন ৪-৫ দিনের মধ্যে পাওয়া যাচ্ছে বলে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানিয়েছেন।
প্রসঙ্গত: পুরাতন বৃহত্তর পাবনা জেলায় পিসিআর ল্যাব এখনও বসেনি। ফলে করোনার নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট পেতে দীর্ঘসূত্রিতার কারণে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়লেও সনাক্ত হচ্ছে না।

Previous articleকালিহাতীতে ৭৩০ পিস ইয়াবাসহ মাদক কারবারি আটক
Next articleউল্লাপাড়ায় প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার পাবেন ৪৪ হাজার পরিবার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।