অতুল পাল: করোনার বিস্তার রোধে সরকার ঘোষিত লকডাউন চলায় দেশের দক্ষিণাঞ্চলের বৃহত্তম বাউফলের কালাইয়া গরুর হাট বন্ধ থাকায় গরু নিয়ে চরম হতাশায় দিন কাটাচ্ছে গরু ব্যবসায়ি ও খামারীরা। গরু কেনা বেচা না হওয়ায় আর্থিক সংকটসহ চরম লোকসানের মধ্যে পড়েছেন কয়েকশত ব্যবসায়ি ও খামারী।

এদের অনেকেই ধার-কর্জ করে এই ব্যবসা করে থাকেন। কোরবানীতে গরু বিক্রির সময় কম পাওয়ায় অনেকেরই অক্রিীত গরু রয়ে গেছে। যা এখন গলার কাঁটা হয়ে দাড়িয়েছে। সরেজমিন দেখা গেছে, সোমবার দক্ষিণাঞ্চলের বৃহৎ গরুর হাট বাউফলের কালাইয়া হাটে লকডাউনের মধ্যেও ক্ষতি পোষাতে কিছু ব্যবসায়ী ও খামারীরা গরু নিয়ে এসেছেন। কিন্তু বেচা-কেনা খবই কম। গরু পরিবহনের জন্য নৌ ও সড়ক পথ বন্ধ থাকায় সচারাচার সাতক্ষীরা, যশোর, খুলনা, মাদারীপুর, ফরিদপুর, চাঁদপুর, লক্ষীপুর, নোয়াখালী এবং চট্রগ্রামসহ বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বেপারীরা না আসায় বেচা- কেনা নেই বললেই চলে। ফলে পটুয়াখালী ও ভোলা অঞ্চলের গরু ব্যবসায়ি ও খামারীরা গরু নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন। ভোলা থেকে হাটে আসা গরু বিক্রেতা মো. আয়নাল ব্যাপারী বলেন, “আমাগো অনেক লচ। কুরবানীর লইগ্যা ১০টা গুরু কিনছিলাম, হের মধ্যে ৪টা বেচছি, হ্যাতে ৭০ হাজার টাহা লচ অইচে। বাহি ৬ টা আডে লইয়াইছি, এহনো ১টাও বেচতে পারি নাই” স্থানীয় গরু ব্যবসায়ী মো. জসিম উদ্দিন জানান, গত সপ্তাহে কোরবানি উপলক্ষ্যে ২৩ টি গরু ঢাকার হাটে পাঠানো জন্য কিনেছিলাম। ট্রাক না পাওয়ায় পাঠাতে পারিনি। এতে বড় লোকসানের মুখে পড়তে হয়েছে। সেই গরু আজ হাটে নিয়ে এসেছি।

পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলার মো. ইয়াছিন মাঝি বলেন, অধিক লাভের জন্য গত এক বছর তিনটি গরু মোটাতাজা করেছি। খরচ হয়েছে ৭ লাখ টাকা। কোরবানিতে গরু বিক্রি না হওয়ায় গরু গুলো এখন গলার কাটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। উপজেলার বিলিবিলাস গ্রামের গরু খামারী মো. হাবিব বলেন, করোনার কারনে গরুর বাজার মূল্য প্রতিবারের চেয়ে অনেক কম ছিল। যার কারনে আমাদের ক্ষতি হয়েছে। কালাইয়া ইউপি চেয়ারম্যান এস.এম. ফয়সাল আহম্মেদ বলেন, কালাইয়া গরু মহিষের হাট দক্ষিণাঞ্চলের মধ্যে বৃহত্তম হাট। দেশী গরু কিনতে এই হাটে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ব্যবসায়িরা আসেন। কিন্তু করোনার কারণে সারাদেশের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন থাকায় তারা আসতে পানেরনি। যার কারণে কেনা-বেচা নেই বললেই চলে। এতে আমাদের দক্ষিণাঞ্চলের গরু-মহিষ ব্যবসায়িরা বিপদে পড়েছেন। তাদের অনেক লোকসানের মধ্যে রয়েছেন। হাটে সামন্য কিছু লোকজন আসায় আমি ব্যক্তিগত উদ্যোগে তাদের মাঝে মাস্ক ও হ্যান্ডস্যানিটাইজার বিতরণ করেছি। এবং সকলকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলতে অনুরোধ করছি।

Previous articleকবে হবে তিস্তায় মেগা প্রকল্পের কাজ শুরু? রাজারহাটে বুড়িরহাট স্পারবাঁধে আবারও ধ্বস
Next articleর‌্যাবের হাতে গ্রাম পুলিশ হত্যা মামলার আসামি আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।