নাজমুল হক: আজ জাতীয় প্রেস ক্লাবের মাওলানা মোঃ আকরাম খা হলে সংক্ষুব্ধ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা বাসির ব্যানারে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি করা হয়। গত ২৬ জুলাই জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার নাম পরিবর্তন করে শান্তিগঞ্জ করেছে।

এব্যাপারে সংক্ষুব্ধ দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা বাসি নামক সংগঠনটির আহবায়ক মোঃ এডভোকেট এম আর খালেদ (তুষার) যুগান্তরকে জানান দক্ষিণ সুনামগঞ্জ নামটি বহাল রাখার পক্ষে উপজেলা বাসী বিভিন্ন কর্মসূচি ও আলোচনা অব্যহত রেখেছিলো। সমাজ সচেতন বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ স্থানীয় সাংসদ তথা পরিকল্পনা মন্ত্রী সাথে ২০২০ সালের ৬ জুন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ নামটি অপরিবর্তিত রাখার ব্যপারে দীর্ঘ আলোচনা করে। নাম পরিবর্তনের সাথে সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ, হয়রানি তথা উপজেলাবাসী ও সরকারের বিশাল পরিমাণ অর্থের ক্ষতির বিষয়ে অবহিত করি। কিন্তু তা আমলে না নিয়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার নাম পরিবর্তন করে শান্তিগঞ্জ করা হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী জনাব আব্দুস সামাদ আজাদের দেয়া নাম ”দক্ষিণ সুনামগঞ্জ” তখনকার সময়ে দল-মত নির্বিশেষে সর্ব সম্মতিক্রমে এই নামটি নামকরণ করা হয়েছিলো। কিন্ত কি এমন প্রয়োজন দেখা দিলো যে, জনাব আব্দুস সামাদ আজাদের দেয়া দক্ষিণ সুনামগঞ্জ নামটি পরিবর্তন করেই ফেলতে হবে। আমি মনেকরি, এতে আওয়ামী লীগ তথা আমাদের সুনামগঞ্জ-৩ এর দুই উপজেলাবাসীর মধ্যে চাঁপা ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে যা দিন দিন বৃদ্ধি পাবে। কয়েকটি দৃশ্যপট এখানে তুলে ধরছি; অত্র দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার অধিনে সর্বমোট ৮টি ইউনিয়ন যথক্রমে দরগাপাশা ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্য ২৯টি) জয়কলস ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ২৩) পশ্চিম বীরগাঁও ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ১৬টি) পূর্ব বীরগাঁও ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ১৩টি) পশ্চিম পাগলা ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ১৬টি) পূর্ব পাগলা ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ১৬টি) পাথারিয়া ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ২২টি) ও শিমুলবাক ইউনিয়ন (গ্রাম সংখ্যা ২২টি) সুতরাং সর্বমোট ১৫৭টি গ্রাম। ২০১১ সালের আদম শুমারী অনুযায়ী সুনামগঞ্জ জেলার সর্বমোট জনসংখ্যা ২৪,৬৭,৯৬৮ জন। উপজেলাবাসীর ভাগ্য উন্নয়নের নাম পরিবর্তনে কোনো সম্পর্ক নেই বরং বিড়ম্বনা, ভোগান্তি, হয়রানি সহ নানা রকম অসুবিধা তৈরী হবে যা নিম্নে উল্লেখ করা হলোঃ-

১। বর্তমান ১৫৭টি গ্রামে নিবন্ধিত সকল নারী-পুরুষ ভোটারদের জাতীয় পরিচয় পত্রে জরুরী ভিত্তিতে অবশ্যই সংশোধনী প্রয়োজন হবে যা অত্র উপজেলাবাসীর জন্য ব্যপক ভোগান্তির কারণ হবে , সময়ের অপচয় হবে, যাতায়াত বাবদ নিজ অর্থ অযথা ব্যয় হবে। উপরোক্ত বিষয় সমুহের কারণে সংক্ষুব্ধ মানুষের মধ্যে বর্তমান সাংসদ তথা পরিকল্পনা মন্ত্রীর প্রতি বিরুপ ধারণা তৈরী হবে। জাতীয় পরিচয় পত্রে সংশোধনী আনতে বাংলাদেশ সরকারের বড় একটি জনবল সার্বক্ষণিক কর্মরত থাকতে হবে। সরকারের মোটা অংকের একটি অর্থ এতে ব্যয় হবে যা বর্তমান করোনাকালীন সময়ে বাংলাদেশ সরকার তথা সাধারণ মানুষের জন্য মোটেও সমিচীন নয়।

২। ইতিমধ্যে এই অধিবাসীদের মধ্য হতে সংগৃহীত নতুন ভোটার আবেদনকারীদের তথ্য হালনাগাদ করতে হবে।

৩। অত্র উপজেলাবাসীর সকল জন্ম নিবন্ধন সনদে উল্লেখিত উপজেলার নাম সংশোধন করতে হবে।

৪। অত্র উপজেলাবাসীর সকল মৃত্যু নিবন্ধন সনদে উল্লেখিত উপজেলার নাম সংশোধন করতে হবে।

৫। দেশে বিদেশে অবস্থানরত অত্র উপজেলাবাসীদের সকল পাসপোর্টে পূরাতন উপজেলার নাম সংশোধন
করে নতুন উপজেলার নামে নতুন পাসপোর্ট তৈরী করতে হবে।

৬। স্কুল, কলেজ এবং মাদ্রাসায় পড়ুয়া ছাত্র-ছাত্রীদের পূরণকৃত বিভিন্ন প্রকার ফর্মে তথা রেজিষ্ট্রেশন কার্ডে
উল্লেখিত উপজেলার নামে সংশোধনী আনতে হবে।

৭। এই উপজেলায় সরকারী আধা-সরকারী এবং দেশি-বিদেশী অরগ্যানাইজেশন কর্তৃক যথাবিহিত নিয়মে প্রেরিত অনুদান, বেতন-ভাতা, সাহায্য-সহায়তা ইত্যাদি ক্ষেত্রে ব্যপক দালিলিক সংশোধন আনতে হবে।

৮। অত্র উপজেলার অধিক্ষেত্রে স্থাপিত বিভিন্ন দোকান-পাট, হোটেল-রেস্তোরা, অফিস-আদালত ইত্যাদির নামে ইস্যুকৃত ট্রেড লাইসেন্স, আয়কর সনদ ইত্যাদিতে সংশোধনী আনতে হবে।

৯। বিভিন্ন দোকান-পাট, হোটেল-রেস্তোরা, অফিস-আদালতের নামে তৈরীকৃত সাইন বোর্ড, বিল বোর্ড ইত্যাদিতে ব্যপক সংশোধনী আনতে হবে।

১০। এই উপজেলায় বসবাসরত অসচেতন ও অতি সাধারন মানুষ যারা এই নাম পরিবর্তনে কোনো স্বার্থকথাই বুঝবে না তারা ক্ষণে ক্ষণে, স্থানে স্থানে, পর্যায়ক্রমে নানান জটিলতার সম্মূখীন হতে হবে যা সঠিক সময়ে সরকারী-বেসরকারী বিভিন্ন সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে অন্তরায়।

অতএব, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট বিনীত প্রার্থনা এই যে, গণমানুষের নেত্রী, মানবিক ও মানবতার কল্যাণে সফল প্রধানমন্ত্রী, জননেত্রীর নিকট অত্যন্ত আশাম্বিত হয়ে সংক্ষুব্ধবাসীর পক্ষ হতে নিবেদন করছি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ তথা দল-মত নির্বিশেষে সর্বজন শ্রদ্বেয় বলিষ্ট রাজনীতিবিদ জনাব আব্দুস সামাদ আজাদ সাহেবের প্রস্তাবিত নাম ”দক্ষিণ সুনামগঞ্জ” কে বহাল রেখে রাজনৈতিক অঙ্গণে জ্যেষ্ঠতা ভেদে সম্পাদিত সকল কর্মকান্ডের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখা সহ দক্ষিণ সুনামগঞ্জে বসবাসরত বিশাল এক জনগোষ্টিকে পর্যায়ক্রমিক ভোগান্তি, হয়রানি এবং অথনৈতিক ক্ষয়-খতি হতে নিভৃতি দানে আপনার নিকট আকুল আবেদন করছি।

Previous articleটাঙ্গাইলের কালিহাতী পৌরসভায় প্রবল বৃষ্টিতে রাস্তায় ধ্বস, ব্যাহত যোগাযোগ ব্যবস্থা
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে এক রাতেই দুই শতাধিক আম গাছ কেটেছে দুর্বৃত্তরা
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।