আবুল কালাম আজাদ: টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে ছোমাইয়া আক্তার (১৫) নামের এক স্কুলছাত্রীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এসময় একইস্থান থেকে মনির নামের এক কিশোরকে গলাকাটা গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার ২৭ অক্টোবর সকাল পৌনে ৭টার দিকে উপজেলার এলেঙ্গা পৌরসভার শামসুল হক কলেজের সামনের একটি ভবন থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়। কালিহাতী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোল্লা আজিজুর রহমান এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন। নিহত ছোমাইয়া উপজেলার পালিমা গ্রামের ফেরদৌসের মেয়ে। সে এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী। আহত মনির (১৭) উপজেলার মশাজান গ্রামের মেহের আলীর ছেলে। সে পরিবহন শ্রমিক হিসাবে কাজ করতো। এলেঙ্গা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাজমুল করিম জানান, ‘জানতে পেরেছি আমাদের বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী ছোমাইয়ার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। শুনেছি ছোমাইয়া সকালে স্থানীয় একটি কোচিংয়ে যাচ্ছিল। এসময় দুর্বৃত্তরা তাকে হত্যা করেছে।’ ওসি মোল্লা আজিজুর রহমান জানান, ‘সকালে স্থানীয় লোকজন কিশোরী ও কিশোরকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয়। পরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে কিশোরীর লাশ উদ্ধার করা হয়। এসময় ওই কিশোর জীবিত ছিল। পরে তাকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। তবে কি কারণে এমন ঘটনা ঘটেছে বা কে ঘটিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।’ টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের জররী বিভাগের দায়িত্বরত চিকিৎসক রাজিব পাল জানান, ‘মনিরের পেট থেকে ভুরি বেরিয়ে পড়েছে। তার গলায় ও গাড়ে কাটা আছে। এছাড়াও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষত আছে। বর্তমানে মনির ওটিতে রয়েছে।’

Previous articleবাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে ১৫টি ঘোড়া দিলো ভারতীয় সেনাবাহিনী
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে ৩ ইউপি সদস্য বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।